fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

রাজ্য সাধারণ সম্পাদক পদকে চ্যালেঞ্জ হিসাবেই নিলেন পুরুলিয়ার বিজেপি সাংসদ জ্যোতির্ময় সিং

গৌতম প্রামাণিক, পুরুলিয়া: রাজ্য কমিটির সাধারণ সম্পাদকের পদকে চ্যালেঞ্জ হিসাবে নিতে চাইছেন পুরুলিয়ার বিজেপি সাংসদ জ্যোতির্ময় সিং মাহাতো। গত ১০ বছর ধরে সাংগঠনিক কাজে যুক্ত থাকা দলের এই তরুণ নেতাকেই রাজ্যের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ সাংগঠনিক পদ দিল বিজেপি। বিধানসভা নির্বাচনকে পাখির চোখ করে যুব সমাজকে দলের দিকে আরও বেশি করে টানতেই এই অভিনব সিদ্ধান্ত রাজ্য বিজেপির বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

২০১০ সাল থেকে সক্রিয়ভাবে হয়ে দলের কাজ করে আসছেন বর্তমানে মাত্র ৩৫ বছর বয়সী জ্যোতির্ময়। নিজের গ্রাম পাতরাডি থেকে পড়াশোনা শুরু করেন জ্যোতির্ময়। প্রাথমিকের পাঠ থেকে পুস্তী হাইস্কুল থেকে অষ্টম শ্রেণী পর্যন্ত পড়াশোনা। এরপর জারগো হাইস্কুল থেকে মাধ্যমিক পাশ করে রাঁচি থেকে স্নাতক পর্যন্ত পড়াশোনা করেন তিনি। এখান থেকে ওড়িশা তে গিয়ে এল এল বি-র পাঠ নেন তিনি। সেখানেই বিজেপির ছাত্র সংগঠনের সঙ্গে সক্রিয়ভাবে যুক্ত হন জ্যোতির্ময়। উল্লেখ্য আর এস এসেরও সক্রিয় কর্মী ছিলেন তিনি। এক বছর আগে পুরুলিয়া লোকসভা কেন্দ্রে তৃণমূল প্রার্থীকে দুই লাখেরও বেশি ভোটে পরাজিত করে নির্বাচিত হন তিনি।

আরও পড়ুন: গ্রামীন কর্মসংস্থানের লক্ষ্যে অন্ডালে ‘মাটির সৃষ্টি’ প্রকল্পের উদ্বোধন

আজ রাজ্য কমিটিতে তাঁর স্থান পাওয়ার খবরে উল্লেসিত হয়ে পড়ে পুরুলিয়া জেলা বিজেপি। খুশির হাওয়া দেখা যায় জেলার অন্যান্য সংগঠক ও কর্মীদের মধ্যে। তাঁকে মিষ্টিমুখ করান বিজেপি জেলা সাধারণ সম্পাদক বিবেক রাঙ্গা সহ অন্যান্য সংগঠকরা। বিবেক বলেন, ‘আমাদের দলে কাজের ধারা প্রকৃতি দেখে দায়িত্ব দেওয়া হয়। পুরুলিয়া জেলার প্রত্যন্ত এলাকা থেকে একজন সংগঠক রাজ্যে দায়িত্ব পেলেন। এটা বিজেপিতেই সম্ভব। জ্যোতির্ময় খুব ভালো সংগঠক রাজ্যে গিয়ে আরো বেশি সাফল্য পাবেন বলে আমি আশাবাদী। ‘

সদ্য রাজ্য সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পাওয়া আত্মবিশ্বাসী সাংসদ জ্যোতির্ময় বলেন, ‘ দলের দায়িত্ব মর্যাদার সঙ্গে পালন করব। দলকে আরও সাংগঠনিকভাবে শক্তিশালী করে তোলার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাব।’

Related Articles

Back to top button
Close