fbpx
আন্তর্জাতিকগুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

PUBG’র সঙ্গে রবি ঠাকুরের সম্পর্ক কি? কেন রবীন্দ্রনাথকে ভয় পেত চিন? প্রতিক্রিয়া বেজিং’র

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: “আমরা রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ও তাঁর কবিতা সাহিত্যকে ভয় পাই না তাহলে ভারত কেন ভয় পাচ্ছে পাবজি ভিডিও গেম কে”? প্রশ্নটা চিনের বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র হুই চেনিং এর। সম্প্রতি পাবজি সহ ১১৮ না পেরে ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে ভারত তার পরই প্রতিক্রিয়ায় এমনটাই জানালো সে দেশের বিদেশমন্ত্রক।

পাবজি গেম এর সঙ্গে রবীন্দ্রনাথের সম্পর্ক কিংবা কোথায় বা আতঙ্ক? জানতে হলে ফিরে যেতে হবে ইতিহাসের পাতায়। ১৯২৪ সালে চিনে প্রথম পা রাখেন বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। সারা বিশ্বই তখন রবীন্দ্রনাথের জনপ্রিয়তার শিখরে। কিন্তু চিনে সাংস্কৃতিক বিপ্লবের নামে

কমিউনিজমের ধারা বইছিল চিনা যুব সম্প্রদায়ের মধ্যে। সেই কারণেই চিনে একাধিক শহরে রবীন্দ্রনাথের ভাষণ বক্তৃতা বয়কটের হুমকি দিয়ে বিরোধিতা শুরু করে সেসময় কমিউনিস্ট পার্টি। তাদের দাবি ছিল রবীন্দ্রনাথের সাহিত্য গান কবিতা বস্তুবাদ কে নষ্ট করে জনসাধারণকে মায়ায় আচ্ছন্ন করে তুলবে তুলবে। এটি অত্যন্ত প্রতিক্রিয়াশীল ঘটনা। কমিউনিজমের পরিপন্থী। সেই বিরোধিতা কেউ পরবর্তীকালে জয় করে রবীন্দ্রনাথ। এরপর রবীন্দ্রনাথকে সমাদরে স্বাগত জানান চিনারা সে দেশের বিপুল জনপ্রিয় রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের সাহিত্য গান ও কবিতা। আজ রবীন্দ্রনাথের সম্পর্ক চীন অত্যন্ত ইতিবাচক মনোভাব পোষণ করে। শুধু তাই নয় যোগাভ্যাস কেউ তারা নিয়মিত চর্চা করে বলেও দাবি চিনা বিদেশমন্ত্রকের।

ঠিক এই জায়গায় ভারতের প্রতিক্রিয়ায় প্রশ্ন তুলেছে বেজিং। কমিউনিজম আজও অটুট রবীন্দ্রনাথ আজও সে দেশে উজ্জ্বল আমরা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি না তাহলে কেন ভারতভুক্তি পাবলিকের নিষিদ্ধ করে? ভারতের উদ্দেশ্যে প্রশ্নটি ছুঁড়ে দিয়েছে চিন।

Related Articles

Back to top button
Close