fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

অনলাইনে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

দেবজ্যোতি কর্মকার, নদিয়া: করোনায় গোটা বিশ্ব ঘর বন্দি। ঘর বন্দি রবিঠাকুরও। এই অবস্থায় তবুও তাঁর জন্মদিন পালনে এতটুকু ভাটা পড়ে নি। অন্তত নদিয়ার করিমপুরের সাংস্কৃতিক মানচিত্রটা এমনই। ”প্রতিটি বাঙালির চিন্তনে যে মানুষটি আছেন তিনি অবশ্যই রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। তিনিই আমাদের পথ দেখান। আসলে অসংখ্য মৃত্যু দেখেছিলেন কবি। সেই শোকেও যিনি স্থির ছিলেন। এই জীবন বোধ আমাদেরও শেখায়। তাঁকে দেখেই তো আমরা এই দুঃসময়ে সাহস পাই। তাই তাঁকে স্মরণ করব না তাই হয়?”  কথাগুলো বলছিলেন করিমপুর থেকে দীর্ঘদিন ধরে প্রকাশিত দর্পণ…মুখের খোঁজে নামক সাহিত্য পত্রিকার সহ সম্পাদক সুব্রত পাল। রবীন্দ্রনাথের শোক তাঁর জীবনের অঙ্গ ছিল সেটা নিয়েই তিনি সৃষ্টি করে গেছেন থেমে থাকেননি। এই বিষয় নিয়েই আশাবাদী মানুষের মতো কবিতা লিখেছেন ওই পত্রিকার অন্যতম প্রাণপুরুষ কল্যাণ চট্টোপাধ্যায়।

পত্রিকার সভাপতি পরিতোষ সরকার জানালেন, ”আমরা প্রতিবছর রবীন্দ্রনাথের জন্মদিন পালন করি। এবছরের পরিস্থিতি অন্যরকম। তাই হোয়াটসআপেই ‘শ্রদ্ধায় মননে রবিঠাকুর’ নামক একটি গ্রুপ তৈরি করে অনুষ্ঠান করলাম। ” পত্রিকার তরফে জানান হয়েছে, অনলাইনে অনুষ্ঠানে স্বরচিত কবিতা পড়েন সুদূর আমেরিকা থেকে কবি রুদ্রশংকর, বাংলাদেশ থেকে কবি ভাগ্যধন বড়ুয়া। এছাড়াও কবি অরিজিৎ পাল,মাধবী দাস, ঈশিতা ভাদুড়ী,মন্দিরা ঘোষ, শীলা বিশ্বাস, অমিত দাস প্রমুখ। রবীন্দ্র সংগীত পরিবেশন করেন নাফসা আজমী, শ্রাবণী রায়, অনুরাধা দাস, অনিতা পাল। রবীন্দ্রনাথের কবিতা আবৃত্তি করেন লুনা পাল, ছন্দা রায়, মধুমিতা রায়, মনাই ঘোষাল সহ আরও অনেকেই।

আরও পড়ুন: করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে বন্ধ হল বেগুনবাড়ির ফলহারিণী কালী পূজা

অন্যদিকে ‘গুগলি গায়েজ এবং মিল্টন ক্রিয়েশন শর্ট ফিল্ম প্রোডাকশন’ নামক সংস্থা দুটিও রবীন্দ্র জন্ম জয়ন্তী পালন করেন হোয়াটসআপ গ্রুপেই। তাঁদের অনুষ্ঠানে প্রারম্ভিক বক্তব্য রাখেন দর্পণ মুখের খোঁজে পত্রিকার সম্পাদক। আয়োজকদের মধ্যে অন্যতম মিল্টন মন্ডল ও নিলাদ্রী মুখোপাধ্যায় জানান, ”আমরা হোয়াটস আপে রবীন্দ্রনাথ জন্ম জয়ন্তী পালন করলাম। প্রতি বছর এই অনুষ্ঠান করব। অনুষ্ঠানে রবীন্দ্রনাথের গান ছাড়াও কবিতা পাঠ এবং নৃত্যও পরিবেশিত হয়।”

করিমপুরের আরও একটি সঙ্গীত সংস্থা ‘জাগৃতি’ দীর্ঘদিন ধরে রবীন্দ্র জন্ম জয়ন্তী পালন করে আসছেন। এবার তাঁরা ঘরে বসেই অনলাইনের মাধ্যমে অনুষ্ঠান করেন। ওই সংস্থার সম্পাদক লিপিকা সিহি জানালেন, ” আমাদের অনুষ্ঠানে কবিতা পড়েন সঞ্চিতা সরকার। সঙ্গীত পরিবেশন করেন, অজন্তা গঙ্গোপাধ্যায়, বিকাশ জোয়ার্দার সহ আরো অনেকে। নৃত্য পরিবেশন করেন, সোহিনী বিশ্বাস, অলি সরকার ও অদ্রিজা।”

Related Articles

Back to top button
Close