fbpx
কলকাতাহেডলাইন

মানুষের প্রতি, গণতন্ত্রের প্রতি বিশ্বাস হারিয়ে হিংসার রাজনীতি করছে তৃণমূল: রাহুল সিনহা

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: ফের বিজেপি কর্মী খুনের ঘটনা ঘটলো বাংলায়। এবার ঘটনাস্থল পূর্ব মেদিনীপুরের ময়না গ্রাম পঞ্চায়েতের খিদিরপুর গ্রাম। দীপক মণ্ডল নামে ওই কর্মীকে বোমা মেরে খুন করা হয়। বিজেপির অভিযোগের তীর তৃণমূলের দিকে। এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন বিজেপির কেন্দ্রীয় সম্পাদক রাহুল সিনহা। তিনি বলেন, গণতন্ত্রের প্রতি বিশ্বাস হারিয়ে হিংসার রাজনীতি করছে তৃণমূল।

তিনি বলেন, ‘ ধারাবাহিকভাবে বাংলায় বিজেপির কর্মীদের খুনের রাজনীতি চলছে। প্রায় প্রতিদিনই রাজ্যের কোথাও না কোথাও বিজেপি কর্মীরা আক্রান্ত হচ্ছেন বা খুন হচ্ছেন। এমনকি আমাদের রাজ্যে বিধায়করা ও নিরাপদ নন। উত্তরবঙ্গের হেমতাবাদের বিধায়ক দেবেন্দ্রনাথ রায়কে খুন করা হয়। তারপরে পূর্ণচন্দ্র দাস, গৌতম পাত্র, অতি সম্প্রতি গণেশ রায়, মৃত্যুর যেন মিছিল চলছে। শুধু তাই নয় এই সরকার এতো অমানবিক যে শহিদ কর্মীদের আত্মার শান্তির জন্য তর্পণ করতে দেয়না। মহালয়ার দিন সাধারণ মানুষের অসুবিধা হতে পারে ভেবে তার আগের দিন তর্পণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিলাম। পুলিশ তাও করতে দিল না।’

আরও পড়ুন: অনাস্থা প্রস্তাব! রাজ্যসভার ডেপুটি স্পিকারের বিরুদ্ধে একজোট বিরোধীরা

তিনি বলেন,’ এই সরকার আসলে মানুষের প্রতি, গণতন্ত্রের প্রতি বিশ্বাস হারিয়ে ফেলেছে। দিদি বুঝতে পেরেছেন মানুষের ভোটে এই সরকার ক্ষমতায় ফিরতে পারবে না। তাই স্বৈরাচারী শাসকের মতো ব্যবহার করছেন। আমাদের কর্মীদের খুন করছে তৃৃমূলণ। এক সময় সিপিএম খুনের রাজনীতি করে ক্ষমতায় টিকে থাকতে চেয়েছিল, পারেনি। দিদি সিপিএমের শেখানো পথে হাঁটছেন। একুশে মানুষই ওঁকে নবান্ন থেকে বিদায় করবে।’

Related Articles

Back to top button
Close