fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

দিদির শেষযাত্রা শুরু হয়েছে! বিরোধী ঐক্যে লাভ হবে না : রাহুল

রক্তিম দাশ, কলকাতা: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি করোনা মোকাবিলায় যে আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণা করেছেন তা নিয়ে দেশের রাজনীতি সরগরম। বিরোধী কংগ্রেস থেকে তৃণমূল এই প্যাকেজের বিরুদ্ধে নিজেদের রণনীতি ঠিক করতে ভিডিও কনফারেন্সের ঘোষণা করেছেন। বিরোধীদের এই রণকৌশলকে উড়িয়ে দিয়ে বিজেপির কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক রাহুল সিনাহা হুঙ্কার দিয়ে বলেছে, ‘দিদির শেষ যাত্রা শুরু হয়ে  গিয়েছে! বিরোধী ঐক্যে লাভ হবে না।’

 

 

বুধবার রাহুল সিনাহা বলেন,‘ দেশ যখন করোন সংক্রমণ থেকে ধীরে ধীরে বেরিয়ে আসছে। দেশের অর্থনীতিকে মোদিজি নিজের পায়ে দাঁড়ানোর জন্য একগুচ্ছ আর্থীক প্যাকেজ ঘোষণা করেছেন। সেই সময় হতাশাগ্রস্থ রাজনৈতিক নেতা-নেত্রীরা এখন সংঘবদ্ধ হওয়ার চেষ্টা করছেন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়,সোনিয়া গান্ধী সহ বাকিরা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে নিজেদের অস্তিত্য বাঁচানোর চেষ্টা করছেন।’

 

 

অতীতের কথা উল্লেখ করে রাহুলবাবু বলেন, ‘ বিগ্রেডে লোকসভা নির্বাচনের আগে সব রাজনৈতিকদল হাতে হাত মিলিয়ে কত শপথ নিলেন,জনপ্লাবনে সব ভেঙে চুরমার হয়ে গেল। একটা বিরোধী দলের চিহ্ন খুঁজে পাওয়া গেল না। সারা দেশের মানুষ রায় দিল তাঁরা মোদিজির সঙ্গে আছেন।’ বিরোধীদের ঐক্যর প্রচেষ্ঠাকে কটাক্ষ করে রাহুলবাবু বলেন,‘ মোদিজি করোনা আবহের মধ্যে দেশের অর্থনীতিকে সুদৃঢ় করতে লোকাল টু গ্লোবালের কথা বলছেন, এই সময় ওই সব রাজনৈতিক নেতারা দেখছেন তাঁদের দোকান আর চলবে না। এমনিতেই তো ওঁদের অবস্থা করুণ। সেই কারণে কি করে রাজনীতিতে ঢের প্রাসঙ্গিক হওয়া যায়, মোদি সরকারের গতিকে আটকানোর জন্য এখন শলা-পরামর্শের জন্য ঐক্যে মিটিং চলছে। এই সময় কিসের ঐক্য, কাদের বিরুদ্ধে ঐক্য? এটা সমবাই বুঝতে পারছেন। কিচ্ছু হবে না।’

 

 

বিরোধিদের সমলোচনা করে রাজুল সিনাহা বলেন,‘ বিরোধিদের শেষযাত্রা প্রায় হয়েই গিয়েছে। আর মমতা বন্দ্যোপাধ্যয়ের শেষযাত্রা শুরু হয়েছে। এসব ঐক্যে কোনও কাজ হবে না। দেশের মানুষ মোদিজির সঙ্গেই আছেন।’

Related Articles

Back to top button
Close