fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

করোনা মোকাবিলায় ব্যর্থ রাজ্য সরকার: রাজু বিস্ত

সঞ্জিত সেনগুপ্ত, শিলিগুড়ি: দার্জিলিংয়ের সাংসদ বিজেপির রাজু বিস্তের বিরুদ্ধে পোস্টার পড়ার ঘটনায় করোনা আবহে শিলিগুড়িতে রাজনৈতিক উত্তেজনা ছড়ালো। লক ডাউনে আটকে যাওয়ায় দার্জিলিংয়ের সাংসদ দিল্লিতে থেকে গিয়েছেন। এই ঘটনাকে সামনে রেখে বুধবার মধ্যরাতে শিলিগুড়ি শহরের বিভিন্ন জায়গায় সাংসদ রাজু বিস্ত নিখোঁজ, সাংসদ আমরা চাই, এ ধরনের স্লোগানে তার ছবি সহ কে বা কারা ফ্লেক্স লাগিয়ে দেয়। সাংসদ এবং তাঁর দল বিজেপি এই ঘটনার পিছনে তৃণমূলের হাত রয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন। বৃহস্পতিবার লিখিত এক প্রেস বিবৃতি দিয়ে রাজু বিস্ত বলেছেন,’ কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য দলে যাওয়ার পর রাজ্যে করোনার প্রকৃত চিত্র সামনে আসতে শুরু করেছে। এতদিন যে করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা গোপন করা হয়েছে তা ধরা পড়ে গিয়েছে। সেই রাজ্যের রেশন ‘ঘোটালা’ও প্রকাশ্যে এসেছে। এসব আড়াল করার জন্যই তৃণমূল আমাকে এভাবে আক্রমণ করেছে।’

এদিকে বিজেপির শিলিগুড়ি সাংগঠনিক জেলা কমিটির সভাপতি প্রবীণ আগরওয়ালা বৃহস্পতিবার শিলিগুড়ি থানায় অভিযোগ দায়ের করে এই পোস্টার কাণ্ডে জড়িতদের খুঁজে বের করার দাবি জানিয়েছেন। তিনি বলেন, তৃণমূলের মদতেই এই কাজ হয়েছে। কেননা কিছুদিন আগে তৃণমূলের দার্জিলিং জেলা সভাপতি রঞ্জন সরকার সাংবাদিক সম্মেলনে প্রশ্ন তুলেছিলেন, দার্জিলিংয়ের সাংসদ এই সংকটে কেন বাইরে রয়েছেন। সাংসদ বািরে থেকে তার নিজের নির্বাচনী এরাকা সহ গোটা রাজ্যের মানুষোর জন্য যে কাজ করছেন তাতে তৃণমূলের নেতা মন্ত্রীরা কোনঠাসা হয়ে পড়েছেন। তাই তাঁরা চাইছো এভাবে সাংসদ রাজু বিস্তকে বিতর্কিত করে দমিয়ে রাখতে।’
যদিও এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন জেলা তৃণমূল সভাপতি রঞ্জন সরকার। তিনি বলেন,’ তৃণমূল এধরনের রাজনীতি করে না। এলাকার মানুষ এই বিপদের দিনে তাদের সাংসদকে কাছে পেতে চাইতেই পারেন। এর সঙ্গে তৃণমূল কোনওভাবেই জড়িত নয়।’
দার্জিলিংয়ের সাংসদ সম্প্রতি যুগশঙ্খকে একান্ত সাক্ষাতকারে জানিয়েছিলেন, গোটা রাজ্যে তুণমূল করোনা নিয়ে রাজনীতি করছে। রেশনের চার চিরি হচ্ছে। আর সে সব চাপা দিতে রাজ্যে বিজেপি নেতৃত্বকে পুলিশ প্রশাসন ব্যবহার করে আটকে রাখতে চাইছে। নানাভাবে প্রভাবিত করে আমাকেও দার্জিলিংয়ে ফিরিয়ে নিয়ে গিয়ে আটকে রাখার জন্য তৃণমূল নেতামন্ত্রী প্রশ্ন তুলছেন আমি কেন বাইরে রয়েছি।’
সেই প্রসঙ্গে  রাজু বিস্ত বলেন, ‘ আমি বাইরে কেন না বলে তৃণমূল নেতারা আমাকে আগে প্রশ্ন করুন লক ডাউনের সময় দিল্লিতে থেকে আমি কী করছি।’
‘ তৃণমূল চূড়ান্ত ব্যর্থ। আমি দিল্লিতে থেকে যে কাজ করছি রাজ্যে বসে তৃণমূলের নেতামন্ত্রীরা সেই কাজ করতে পারছেন না।

করোনার বিরুদ্ধে যারা সামনে থেকে লড়াই করছেন তাদের প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সরঞ্জাম দিতে পারছে না তৃণমূল সরকার।’ এই অভিযোগ করে রাজু বিস্ত বলেন, ‘ আমার পোস্টার টাঙিয়ে সময় নষ্ট না করে তৃণমূলের নেতামন্ত্রীরী্ আগে বলুন, কেন উত্তরবঙ্গের সব জেলার করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসাররজন্য কোভিড হাসপাতাল হলো না। কেন প্রয়োজন মতো করোনা পরীক্ষা হচ্ছে না। গরীব মানুষের জন্য কেন্দ্রের দেওয়া চাল, ডাল গরীব মানুষ ঠিক মতো পাচ্ছে না কেন?

Related Articles

Back to top button
Close