fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

নাবালিকা ধর্ষনের ঘটনায় উত্তাল কাঁথি, অভিযুক্তকে মারধর, টোটোতে আগুন 

মিলন পণ্ডা, জুনপুট: খাবারের লোভ দেখিয়ে এক নাবালিকাকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার হল প্রতিবেশী টোটো চালক।ঘটনা জানতে পেরে এলাকার বাসিন্দারা টোটো চালকের বাড়িতে চড়াও হয়। লকডাউনে মাঝে এলাকায় অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে গোটা এলাকা। উত্তেজিত বাসিন্দারা টোটো চালক সহ তার পরিবারের সদস্যদের মারধর করে। এমনকি টোটোতে আগুন ধরিয়ে দেয় উওেজিৎ বাসিন্দারা। ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার কাঁথি দেশপ্রাণ ব্লকের দেশদত্তবাড় এলাকায়। অবশেষে ঘটনাস্থলে হাজির হয় জুনপুট উপকূল থানার পুলিশ। উত্তেজিত এলাকার বাসিন্দাদের বুঝিয়ে টোটো চালক ও তার মাকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। এরপর ধর্ষিতা নাবালিকা পরিবারের সদস্যের অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযুক্ত বিনয় মাইতিকে নামে এক টোটো চালককে গ্রেফতার করে।মঙ্গলবার অভিযুক্তকে কাঁথি মহকুমা আদালতে তোলা হলে বিচারক তার জামিন নাকচ করে ১৪ দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দেন।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, পূর্ব মেদিনীপুর জেলার কাঁথি দেশপ্রাণ ব্লকের দেশদত্তবাড় গ্রামের বাসিন্দা বিনয় মাইতি পেশায় টোটো চালক। সোমবার সন্ধ্যা নাগাদ প্রতিবেশী দশ বছরের এক নাবালিকাকে চকলেটের লোভ দেখিয়ে বাড়িতে ডেকে নিয়ে যায় টোটো চালক বিনয় বলে অভিযোগ। বাড়ির মধ্যে ওই নাবালিকাকে যৌন হেনস্থা করে বিনয় বলে অভিযোগ।দীর্ঘক্ষণ নাবালিকা বাড়ি না ফেরায় পরিবারের লোকেরা খোঁজাখুঁজি শুরু করেন। পরিবারের সদস্যরা নাবালিকার বন্ধুদের জিজ্ঞাসা করলে জানতে পারেন বিনয় এসে ওই নাবালিকাকে ডেকে নিয়ে যায়। এরপর পরিবারের সদস্যরা নাবালিকা মেয়ের সন্ধানে বিনয় বাড়িতে যায়। নাবালিকা চিৎকার করতে না পারে তার জন্যই মুখে নাবালিকা কাপড় বেঁধে দেয় বিনয় বলে অভিযোগ। বিনয় জানিয়ে দেয় তার বাড়িতে নাবালিকা আসেনি।কথাবার্তা অসঙ্গতি হলে প্রতিবেশীরা একজোট হয়ে বিনয় বাড়িতে এসে হাজির হয়। প্রতিবেশীরা বাড়ি সার্চ করার জন্য কথা বললে অবশেষে নাবালিকাকে পেছন দরজা দিয়ে পাঠিয়ে দেয় বলে অভিযোগ।

এরপর পরিবারের সদস্যরা নাবালিকাকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সমস্ত কথা জানায়। ঘটনার পর উত্তেজিত হয়ে পড়ে এলাকার বাসিন্দারা।টোটো চালকের বাড়িতে চড়াও হয়। বিনয়কে মারধর শুরু করে। তার পরিবারের সদস্যদের হেনস্থা করে এলাকার বাসিন্দারা বলে অভিযোগ। শুধু তাই নয় বিনয় চুল কেটে নেওয়া হয় ও মুখে কালি মাখিয়ে দেয় গ্রামবাসীরা। উত্তেজিত কিছু গ্রামবাসী টোটোতে আগুন লাগিয়ে দেয়।ঘটনার খবর পেয়ে ছুটে আসে জুনপুট উপকূল থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী। অবশেষে উত্তেজিত গ্রামবাসীদের বুঝিয়ে বিনয় সহ তার পরিবারের সদস্যদের আটক করে থানায় নিয়ে যায়। এরপর ধর্ষিতা নাবালিকার পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগ পেয়ে পুলিশ অভিযুক্ত টোটো চালক বিনয়কে করে।

কাঁথি মহকুমা পুলিশ আধিকারিক অভিষেক চক্রবর্তী বলেন, অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্তে নেমে অভিযুক্ত যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে। ওই নাবালিকা সরকারি হাসপাতালে ডাক্তারি পরীক্ষা করানো হয়েছে। পুরো ঘটনাটি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।ধৃত টোটো চালক বিনয় বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও পকসো আইনে মামলা রুজু করেছে পুলিশ।

Related Articles

Back to top button
Close