fbpx
আন্তর্জাতিকবাংলাদেশহেডলাইন

বাংলাদেশে ধর্ষণবিরোধী বিক্ষোভ অব্যাহত, স্বারাষ্ট্রমন্ত্রীর ইস্তফা দাবি

যুগশঙ্খ প্রতিবেদন ঢাকা: বাংলাদেশে সম্প্রতি অব্যাহত ধর্ষণ ও যৌন নিপীড়নের ঘটনায় দোষীদের বিচারের দাবিতে ঢাকার মতিঝিলের শাপলা চত্বরে সড়ক অবরোধ করেছে শিক্ষার্থীরা। অবরোধ থেকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি করা হয়।

রবিবার দুপুর দেড়টা থেকে একদল শিক্ষার্থী সড়ক অবরোধ করে। এতে মতিঝিল শাপলা চত্বর হয়ে সব দিকেই যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

মতিঝিল থানার ওসি মনির হোসেন মোল্লা বলেন, ধর্ষকদের বিচারের দাবিতে মতিঝিল আইডিয়াল কলেজ ও মতিঝিল বয়েজ কলেজের কয়েকশ শিক্ষার্থী সড়কে নেমে অবরোধ করে রেখেছে। তারা ‘ধর্ষণবিরোধী আন্দোলন’ ব্যানার নিয়ে বিক্ষোভ করছে।

‘আমার সোনার বাংলায় ধর্ষকদের ঠাঁই নাই’, ‘জেগেছে রে জেগেছে ছাত্র সমাজ জেগেছে’, ‘ধর্ষকদের বিরুদ্ধে লড়তে হবে একসঙ্গে’, ‘প্রীতিলতার বাংলায় ধর্ষকদের ঠাঁই নাই’- এমন স্লোগান দিয়ে বিক্ষোভ করছেন এসব শিক্ষার্থীরা।

সম্প্রতি সিলেটের এমসি কলেজ, নোয়াখালীর বেগমগঞ্জসহ বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলায় ধর্ষণের ঘটনায় প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে সর্বত্রয়। শিক্ষার্থী, সাধারণ জনগণ, দেশের বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন এর বিরুদ্ধে ফুঁসে উঠেছে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও চলছে তীব্র প্রতিবাদ। ধর্ষণের শাস্তি মৃত্যুদ- করার তীব্র দাবি উঠেছে সাধারণ জনগণের পক্ষ থেকে। ক্ষমতাসীন আওয়ামি লিগ, বিরোধী দল বিএনপিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল থেকেও জনগণের এই দাবির পক্ষে সমর্থন জানানো হয়েছে।

আওয়ামি লিগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরও ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদ- করার দাবিতে সমর্থন জানিয়েছেন।

গত ৭ অক্টোবর এক অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, এদের ছোটখাটো লঘু দ- দিয়ে লাভ নেই। সর্বোচ্চ বিচারের যে দাবি উঠেছে, আমার মনে হয় এটা অযৌক্তিক নয়। এসব অপরাধীদের বিরুদ্ধে সব রাজনৈতিক সামাজিক সংগঠনকে আপসহীন মনোভাব নিয়ে এগিয়ে আসতে হবে। এ অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে সরকার ধর্ষণ অপরাধের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদ- করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

Related Articles

Back to top button
Close