fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

দলীয়কর্মী ধরা পড়তেই রেশন কার্ডের স্বচ্ছতার দাবিতে সরব বিজেপি

জয়দেব লাহা, দুর্গাপুর: ‌দলীয়কর্মী ধরা পড়তেই, রেশনকার্ডের তালিকায় স্বচ্ছতার দাবিতে সরব হল বিজেপি। একই সঙ্গে রেশনে টোকেন বন্টনের তালিকা প্রকাশের দাবী জানালো বিজেপি। বুদবুদের রেশনে ভুয়োকার্ডের তথ্য উঠে আসতেই ঘটনার পুর্নারঙ্গ তদন্তের দাবী জানিয়েছে গলসী-১ নং ব্লক তৃণমূল কংগ্রেস। বৃহঃস্পতিবার গ্রেফতার হওয়া বিজেপি নেতাকে আদালতে তোলা হলে বিচারক তার জামিন খারিজ করে দেন।

প্রসঙ্গত, বুধবার রেশনে খাদ্যসামগ্রী তুলতে গিয়ে রেশনকার্ড জালিয়াতিতে ধরা পড়ে বুদবুদের এক বিজেপি নেতা। অভিযুক্তের নাম স্বপন সরকার বুদবুদ সুকান্তনগরের বাসিন্দা। এদিন রেশন তোলার সময় তার কাছে ১৯ কার্ড আটক করে পুলিশের তুলে দেয় স্থানীয় তৃণমূলকর্মীরা। অভিযোগ মত তদন্তে নামে গলসী-১ নং খাদ্য দফতর। অভিযোগ, স্বপনবাবুর পরিবারে বর্তমানে চারজন থাকলেও পরিবারের বাকি সদস্যরা বাংলাদেশ থাকে। তাদের নামের রেশনকার্ডে খাদ্যসামগ্রী তুলছে। আরও অভিযোগ, কয়েকজনের নামে দুরকমের দুটি করে কার্ড রয়েছে। যা আইন বিরুদ্ধ এবং প্রতারনা করছে বলে অভিযোগ। এদিন গলসী-১ নং বিডিও র অভিযোগের ভিত্তিতে স্বপন সরকারকে গ্রেফতার করে পুলিশ। বৃহঃস্পতিবার তাকে দুর্গাপুর মহকুমা আদালতে তোলা হয়। তার বিরুদ্ধে প্রতারনার মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। আদলতে তার জামিন খারিজ করে ৮ দিনের পুলিশ হেপাজতের নির্দেশ দেয়। এদিকে দলীয়কর্মী গ্রেফতার হতেই রেশনকার্ডের তালিকার স্বচ্ছতার দাবীতে সরব হয়েছে পুর্ব বর্ধমান জেলা বিজেপি। বিজেপির জেলা সহ সভাপতি রমন শর্মা জানান,” আইন আইনের পথে চলবে। এবং সবার জন্য যেন প্রযোজ্য হয়। রাজনৈতিক রং যেন দেখা না হয়। ভুয়ো রেশনকার্ড যারা ইস্যু করেছেন, তাদের বিরুদ্ধেও তদন্ত করে ব্যাবস্থা নেওয়ার দাবী জানাচ্ছি।” তিনি দাবী করে বলেন,” রেশন কার্ডের গ্রাহকদের ক্যাটাগরি ভিত্তিক তালিকা প্রকাশ করা হোক। অনুমান এমনও আছে যাদের রেশনকার্ড আছে আবার টোকেনও পেয়েছে। তৃণমূলের অনেক নেতাকর্মী একাধিক ব্যাক্তির টোকেন তুলে রেখেছে। তাই রেশন দোকানে ওই কার্ড হোল্ডারের এবং টোকেন প্রাপকদেরও তালিকা টাঙ্গানো হোক।

তালিকা অনুযায়ি উপোভোক্তাদের পরিবারের সদস্যদের খাদ্য সামগ্রী বন্টন করতে হবে। পরিবারের সদস্য ছাড়া অন্য কাউকে রেশন সামগ্রী দেওয়া চলবে না।” তৃণমূলের গলসী-১ নং ব্লক সভাপতি জাকির হোসেন জানান,” একজন ব্যাক্তি কিভাবে দুরকমের রেশন কার্ড পেয়েছে? তদন্তের দাবী জানিয়েছি। একই সঙ্গে ভুয়ো রেশন কার্ডেরও তদন্তের দাবী জানিয়েছি। তাতে রাজনীতির রং দেখা চলবে না। এরকম রেশনকার্ডধারী শাসক, বিরোধী যেকোন দলেরই হোক, আইন আইনের পথে চলবে।” যদিও এবিষয়ে গলসী-১ নং খাদ্য দফতর কোন মন্তব্য করতে চায়নি। তবে গলসী-১ নং বিডিও বিনয় কুমার মন্ডল বলেন,” তদন্ত চলছে। কিভাবে ওই ব্যাক্তি দুরকমের কার্ড পেয়েছে সেটাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।”

Related Articles

Back to top button
Close