fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

চরম পরিস্থিতির জন্য প্রস্তুত, ড্রাগনকে রুখতে লাদাখে বিরাট শক্তিবৃদ্ধি ইন্ডিয়ান আর্মির

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক:   কমান্ডার লেবেল মিটিংয়ে কাজ হয়নি। ফিরে যাব বলেও পেছনে হটেেেনি ড্রাগন। বরং এবার সীমান্তে উত্তেজনা আরো বাড়লো।

গতকাল, বুধবারই উপগ্রহ চিত্র সামনে এসেছিল। তাতে দেখা গিয়েছিল কথার খেলাপ করে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখার কাছে চিনের ভূখণ্ড তাঁবু তৈরি করে ফেলেছে পিপলস লিবারেশন আর্মি। বৃহস্পতিবার সরকারের শীর্ষ সূত্রে খাবর, সমস্ত রকম ভাবে ভারতীয় ভূখণ্ডকে সুরক্ষিত রাখতে লাদাখে বিরাট পরিমাণ সেনা মোতায়েন করতে চলেছে নয়াদিল্লি। তিনটি পেট্রলিং পয়েন্টে মূলত সেনা মোতায়েন করা হচ্ছে বলে খবর।

মঙ্গল ও বুধবার দুদিনের লেহ সফরে গিয়েছিলেন সেনা প্রধান জেনারেল মনোজ মুকুন্দ নারাভানে। বৃহস্পতিবার লেহ স্থিত ১৪ কোরের হেড কোয়ার্টারে বৈঠক করেন সেনাবাহিনীর ডিরেক্টর জেনারেল (অপারেশন) পরমজিত সিং এবং ইন্দো-টিবেটান বর্ডার ফোর্সের প্রধান এসএস দেসওয়াল। সেখানে সিদ্ধান্ত হয়েছে লাদাখে সেনাবাহিনীকে সাহায্য করতে আইটিবিপি-র বাহিনীও মোতায়েন করা হবে। সরকারের শীর্ষ সূত্রে বলা হচ্ছে, কোনও ঘটনা ঘটার আগেই ওই এলাকায় বাহিনী মোতায়েন করা হচ্ছে।

পেট্রলিং পয়েন্টে একএকটি প্ল্যাটুনে আগে ৩০ জন করে সেনাকে রাখাটা হত। সূত্রের খবর এখন ঠিক হয়েছে সেটা বাড়িয়ে ১০০ করা হচ্ছে। অর্থাৎ সংঘাত হলে যাতে লোকসংখ্যা কমে না যায়। কারণ ১৫ জুনের সংঘাতের ঘটনার পর জানা গিয়েছিল, সংঘর্ষ শুরুর পর বেশ খানিকটা সময় ভারতীয় সেনাদের থেকে চিনা সেনাদের সংখ্যা ছিল অনেক বেশি।

সূত্রের খবর, ১৪ নম্বর পেট্রলিং পয়েন্ট (গালওয়ান), ১৫ নম্বর পেট্রলিং পয়েন্ট (কোংকা লা) এবং ১৭ নম্বর পেট্রলিং পয়েন্ট (হট স্প্রিং)- এ বিপুল শক্তি বাড়ানো হচ্ছে। শুধু সেনাবাহিনী নয়, লড়াইয়ের উপকরণও রাখা হচ্ছে পর্যাপ্ত।

Related Articles

Back to top button
Close