fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

ব্যারাকপুরে করোনা আক্রান্তকে সরকারি হাসপাতালে পাঠালেন না রোগীর আত্মীয়রা 

অলোক কুমার ঘোষ, ব্যারাকপুর: করোনা আক্রান্ত এক রোগীকে সরকারি হাসপাতালে পাঠালেন না তার পরিবারের সদস্যরা। ওই রোগীকে রাজারহাটের করোনা হাসপাতালে ভর্তির জন্য নিতে এসেও ফিরে গেল সরকারি অ্যাম্বুলেন্স। করোনা আক্রান্ত ওই রোগীর পরিবারের সদস্যরা ওই রোগীকে সরকারি হাসপাতালে পাঠাবেন না বলে জানিয়ে দিলে ফিরে যায় প্রশাসনের পাঠানো সরকারি অ্যাম্বুলেন্স। এই ঘটনা উত্তর ২৪ পরগনার ব্যারাকপুর পুরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের ব্যারাকপুর চাঁদমারি এলাকার। উত্তর ২৪ পরগনা জেলায় এই ঘটনা ব্যতিক্রমী।

এদিকে স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ব্যারাকপুর পুরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের চাঁদমারি এলাকার বাসিন্দা এক যুবতী করোনা আক্রান্ত হয়ে বাড়িতেই আইসোলেশনে রয়েছে। ওই যুবতী গৃহ শিক্ষিকা বলে জানা গেছে। সোমবার রাতে ওই যুবতীকে রাজারহাটের করোনা হাসপাতালে ভর্তির জন্য তার বাড়িতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে অ্যাম্বুলেন্স পাঠানো হলে ওই রোগীর বাড়ির আত্মীয়রা জানিয়ে দেন রোগী বাড়িতে থেকেই সুস্থ হয়ে উঠবে। স্বাস্থ্য কর্মীদের অনুরোধেও করোনা আক্রান্ত রোগী বাড়ির বাইরে বেরোননি। এই ঘটনা পাড়ায় জানাজানি হতেই ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে প্রতিবেশীরা। করোনা আক্রান্ত পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে প্রতিবেশীদের ঝগড়া শুরু হয়। মঙ্গলবার সকালে এই ঘটনার জেরে প্রতিবেশীরা করোনা আক্রান্ত ওই রোগীর বাড়ি সংলগ্ন এলাকাটি নিজেরাই বাঁশের ব্যারিকেড করে ঘিরে দেয়।

আরও পড়ুন: বালুরঘাটে দূর্ঘটনার কবলে দমকলের গাড়ি, আহত ওসি সহ ৬ কর্মী

প্রতিবেশীরা বলেন, “আমরা চাই করোনা আক্রান্ত রোগী সরকারি হাসপাতালে গিয়ে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে আসুক। বাড়িতে থাকলে অন্যান্যদের সংক্রমণের সম্ভাবনা থেকে যায়। কিন্তু ওই রোগীর পরিবারের সদস্যরা রোগীকে হাসপাতালে ভর্তি করছে না। বাধ্য হয়ে আমরা এই রাস্তায় ব্যারিকেড করলাম ।” ওই রোগীর পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছে, রোগীর মধ্যে অসুস্থতার লক্ষণ নেই। রোগী বাড়িতে থেকেই সুস্থ হয়ে উঠবে। সংক্রমন যাতে না ঘটে সেই কারনে পরিবারের সদস্যরা সকলেই বাড়িতে থাকবে। এই ঘটনায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে ব্যারাকপুর চাঁদমারি এলাকায়।

Related Articles

Back to top button
Close