fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

শহরে দূষণের মাত্রা কমাতে গড়ে তোলা হবে আরবান ফোরেস্ট্রী

অভিষেক গঙ্গোপাধ্যায়, কলকাতা: দূষণ কমাতে খোদ কলকাতা শহরের বুকেই পুর সভার উদ্যোগে গড়ে তোলা হবে আরবান ফোরেস্ট্রী। দক্ষিণ কলকাতার রডন স্ট্রিটে এক পরিত্যাক্ত জলাভুমি সহ পার্কে এই ধরণের সবুজায়ন করা হবে। একই সঙ্গে চলবে সৌন্দর‌্যযয়ণ কাজও।
আমফানের পর শহর জুড়ে বহু প্রাচীন বৃক্ষের উত্খাত হয়েছে। শহর জুড়ে উপরে যাওয়া গাছের সংখ্যা নিতান্ত কম নয়। যা কেটে সরাতে রীতিমত হিমসীম খেতে হয়েছিল পুরসভাকে। এবার তাই শহরের দূষণের মাত্র কমাতে আরবান ফরেস্ট্রী করার পরিকল্পনা নিল পুরসভা। এই পরিকল্পনা শুরু হল রডন স্কোয়ার পার্ক থেকে।
সাড়ে চার একর জমির ওপর কুড়ি লক্ষ টাকা ব্যয় করে এই প্রকল্পটি করা হবে বলে জানিয়েছেন পুর প্রশাসক মণ্ডলীর চেয়ারম্যান ফিরহাদ হাকিম। তাই শনিবার এলাকা পরিদর্শনে এসেছিলেন ফিরহাদ হাকিম তার সঙ্গে ছিল পুরসভা ঊর্ধ্বতন আধিকারিকরা সবাইকে নিয়ে তিনি এদিন সাড়ে চার একরের পার্ক ঘুড়ে দেখেন। পারকর্টি কিভাবে সাজানো হবে কি কি গাছ লাগানো হবে এবং পুকুরে কি মাছ ছাড়া হবে সবকিছুই ইতিমধ্যে পরিকল্পনা হয়ে গিয়েছে। সোমবার থেকেই পার্কের কাজ শুরু হবে বলে জানা গিয়েছে। পার্কে লাগানোর জন্য বড় বড় গাছেরও ব্যবস্থা করা হয়েছে। পুরো পার্টিকেই পুকুর কেন্দ্রিক সাজানো হবে। সৌন্দর্যায়নের জন্য ব্যবহার করা হবে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির আলো। পুকুরের চারপাশ দিয়ে তৈরি হবে সুন্দর রাস্তা। যাতে মনোরম পরিবেশে এলাকার মানুষ প্রাতঃভ্রমণ ও সন্ধ্যাভ্রমণ সারতে পারেন। পার্কে বসার জন্য সুন্দর বেঞ্চের ব্যবস্থা করা হবে। এতদিন এই পার্কটি স্থানীয় কাউন্সীলর দেখভাল করতেন। এবার থেকে পুরসভা করবে। এই জমিটি সম্পূর্ণ পুরসভার হল।

আম্ফান পরবর্তী সময়ে প্রায় ৫০০০ এর বেশি গাছ উপরে গিয়েছিল। ফলে এত বিশাল পরিমাণে গাছ উপড়ে যাওয়ায় শহরের বাতাবরণে কার্বন-ডাই-অক্সাইডের পরিমাণ অক্সিজেনের তুলনায় বাড়তে থাকে। তাই তড়িঘড়ি শহরজুড়ে গাছ লাগানোর কাজ হলেও যে ধরনের গাছ শহর থেকে উপরে গিয়েছে তার সমসাময়িক গাছ লাগানো সম্ভব হয়নি। গাছ লাগানোর বিষয়ে বন মন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় এর সঙ্গে একাধিকবার বৈঠক হয় পুরো প্রশাসক মন্ডলের চেয়ারম্যান ফিরহাদ হাকিমের। রাজীব আশ্বস্ত করেছিলেন পুরসভাকে শহরে গাছ লাগাতে সর্বত ভাবে সাহায্য করা হবে।

Related Articles

Back to top button
Close