fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

দুঃস্থ করোনা সংক্রামিত রোগীর পরিবারের পাশে দাঁড়াল দিনহাটার গোপালনগরের বাসিন্দারা

জেলা প্রতিনিধি , দিনহাটা: দুঃস্থ পরিবারের মহিলা করোনা সংক্রামিত এক রোগীর পরিবারের পাশে থেকে তাদের সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিল গোপালনগর এলাকার বাসিন্দারা। শুক্রবার গোপাল নগর পুকুরপাড় এলাকার দুঃস্থ পরিবারের এক মহিলা করোনা সংক্রমিত হতেই প্রতিবেশীরা সকলকে সচেতনতার পাশাপাশি ওই পরিবারকে খাদ্য সামগ্রী থেকে শুরু করে সব রকমের সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিল। দিনহাটা পৌরসভা এলাকার ৯ নম্বর ওয়ার্ডের গোপালনগর এলাকায় দুঃস্থ পরিবারের এক গৃহবধূ বুধবার রেপিড টেস্টে সংক্রমিত হয়।

শুক্রবার প্রশাসনের পক্ষ থেকে তার রিপোর্ট পজেটিভ আসতেই এলাকার বাসিন্দারা নিজেরাই দুই ধারের রাস্তা বাঁশ দিয়ে আটকে দেওয়া ছাড়াও ওই বাড়ির কেউ যাতে বাইরে বের হতে না পারেন তার জন্য বাড়ির সামনে ও আটকে দেওয়া হয়। এছাড়াও মহকুমা প্রশাসনের পক্ষ থেকেও ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট প্রলয় মন্ডল টেলিফোনে ওই পরিবারের সব কিছু খোঁজখবর নেন।

গত তিন দিনে দিনহাটা শহরে ২৩ জন নতুন করে করোনা সংক্রামিত হয়।গোপালনগর পুকুরপাড় এলাকায় ওই মহিলা সংক্রমিত হতেই প্রতিবেশীরা আতঙ্কিত হয়ে নিজেরাই বাসের বেরিগেট দিয়ে বাইরের মানুষের যাতায়াতের নিয়ন্ত্রণ করেছেন। পাশাপাশি পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকেও দিনহাটা থানার এসআই দীপক রায় নিজে এসে আক্রান্ত পরিবারের লোকেদের সঙ্গে কথা বলে তাদের ঘরে থাকার কথা বলেন।

আরও পড়ুন:তুরস্কের সঙ্গে গ্রিস-ইউরোপের নতুন করে উত্তেজনা

কোনরকম কাজকর্ম করে দিন গুজরান করেন দুস্থ পরিবার। পরিবারের গৃহবধূ করোনা আক্রান্ত হতেই আগামী ১৫দিন তাদের হোম আইসোলেশনে থাকতে হবে। কি করে চলবে তাদের সংসার এ কথা মাথায় রেখে এলাকার বাসিন্দারা ওই পরিবারের তিন জনের জন্য চাল থেকে শুরু করে ডাল, তেল, লবণ, ডিম ছাড়াও প্রয়োজনীয় সব রকম জিনিস তাদের হাতে তুলে দেন। পাশাপাশি মহকুমা প্রশাসনের সহযোগিতায় পুরসভার পক্ষ থেকেও ওই পরিবারের জন্য সুস্বাস্থ্য কিট এবং বেশ কয়েক কেজি চাল তুলে দেওয়া হয়। প্রশাসনের পক্ষ থেকে বারে বারে প্রচার করা হচ্ছে এলাকার কেউ করোনা আক্রান্ত হলে সেই রোগী ও তার পরিবারকে দূরে সরিয়ে না দিয়ে সহযোগিতা করুন। ঠিক সেই সময় শহরের গোপাল নগর এলাকার বাসিন্দারা করোনা সংক্রমিত রোগীর পাশে থেকে তাদের পরিবারকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়ে দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন বলেও অনেকে উল্লেখ করেন। বিভিন্ন এলাকায় কেউ করোনা সংক্রমিত হয়ে পড়লে তাদের নানাভাবে হেয় করার খবর কান পাতলেই শোনা যায়। ঠিক সেই সময় গোপালনগর পুকুর পাড় এলাকার বাসিন্দারা যেভাবে এগিয়ে এসে ওই পরিবারের পাশে দাঁড়ালো তা এককথায় সমাজে নজির হয়ে থাকবে বলেও উল্লেখ করেন অনেকেই। এলাকার বাসিন্দারা যেভাবে এগিয়ে এসেছে তাকে সাধুবাদ জানান, সমাজের বিভিন্ন স্তরের মানুষ।

এলাকার বাসিন্দাদের তরুণ কর্মকার, হারান দে, বিশ্বনাথ সাহা, সুদেব কর্মকার, বিপুল সাহা, অভিনব রায়, অনুপ সাহা, সঞ্জয় সাহা, মানু রায়, গৌতম সাহা প্রমুখ বলেন তারা নিজেদের এলাকায় করোনা থেকে অনেকটাই দূরে ছিলেন। এতদিন শহরের বিভিন্ন ওয়ার্ডে কেউ কেউ আক্রান্ত হলেও এবার নিজেদের এলাকাতেই দুইজন মহিলা সংক্রমিত হয়। এদের মধ্যে একজন নিজেদের প্রতিবেশী। এলাকায় প্রতিবেশী ওই মহিলা সংক্রমিত হয় তারা সকলের সঙ্গে কথা বলে বাঁশ দিয়ে যাতায়াতের রাস্তা যেমন আটকে দিয়েছেন তেমনি ওই বাড়ির কেউ যাতে বের হতে না পারে তার জন্য সেখানেও আটকে দেওয়া হয়েছে। শুধু তাই নয় তাদের যাতে খাবারের কোনও অসুবিধে না হয় সেটাও তারা ব্যবস্থা করেছেন। দুঃস্থ ওই পরিবারের যাতে আগামী কয়েকদিন কোনও রকমের সমস্যা না হয় তার জন্য তারা পাশে থেকে তাদের সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

আরও পড়ুন:দিদি, বিনা খরচের চিকিৎসা কোথায়? সাধারণ মানুষ যে ধুঁকে মরছেন প্রতিদিন

দিনহাটা মহকুমা হাসপাতালে সুপার রঞ্জিত মন্ডল, চিকিৎসক উজ্জ্বল আচার্য, অজয় মণ্ডল, কল্লোল বন্দ্যোপাধ্যায় থেকে শুরু করে অনেকেই বলেন, গোপালনগর পুকুর পাড় এলাকার বাসিন্দারা যেভাবে করোনা আক্রান্ত রোগী ও তার পরিবারের পাশে দাঁড়ালো এভাবে সবাই এগিয়ে এলে এই রোগ মোকাবিলা করা খুবই সহজ হবে।

এদিকে পুরসভার পক্ষ থেকে এদিন বাপি গোস্বামী সহ অন্যান্য কর্মীরা ওই বাড়িতে গিয়ে তাদের হাতে সুস্বাস্থ্য কিট ও খাদ্য সামগ্রী তুলে দেন। দিনহাটা মহকুমা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, দিনহাটায় নতুন করে ছয় জন আক্রান্ত হয়েছে। এদের মধ্যে দুইজন শহরের নয় নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা।

Related Articles

Back to top button
Close