fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

এক্সপ্রেস ট্রেন পরিষেবা চালু হওয়ায় খুশি ঝাড়গ্রামের বাসিন্দারা

সুদর্শন বেরা, ঝাড়গ্রাম: দীর্ঘ ছয় মাস পর চালু হল এক্সপ্রেস ট্রেন পরিষেবা। শুক্রবার সকাল ৮ টা ১৫ মিনিট নাগাদ টাটা হাওড়া টাটা স্টিল এক্সপ্রেস ট্রেনটি ঝাড়গ্রাম স্টেশনে এসে দাঁড়ায়। ট্রেন আসার আগেই ঝাড়গ্রাম স্টেশন কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে প্লাটফর্মে যাত্রীদের দাঁড়ানোর জন্য চুন দিয়ে গোল গোল করে দাগ দিয়ে দেওয়া হয়। সেই নির্দিষ্ট জায়গায় যাত্রীদের দাঁড়াতে বলা হয়। ট্রেনে ওঠার আগেই যাত্রীদের হাতে স্যানিটাইজার দেওয়া হয় ।সমস্ত যাত্রীদের মুখে মাস্ক ছিল। ট্রেনে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে যাত্রীদের বসার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

করোনা পরিস্থিতির জন্য দীর্ঘ ছয় মাসের বেশি ট্রেন চলাচল বন্ধ ছিল ।যার ফলে চরম দুর্ভোগের মধ্যে পড়েছিলেন নিত্যযাত্রী থেকে চাকরিজীবীরা। তাই শুক্রবার থেকে ট্রেন চালু হওয়ায় খুশি ঝাড়গ্রামের বাসিন্দারা। তবে শুক্রবার থেকে কেবলমাত্র এক্সপ্রেস ট্রেন পরিষেবা চালু করা হয়েছে। কিন্তু লোকাল ট্রেন পরিষেবা কবে চালু হবে তা এখনও রেলের পক্ষ থেকে জানানো হয়নি। তবে শুক্রবার প্রশাসনের সমস্ত নিয়ম মেনে এক্সপ্রেস ট্রেন চালু করা হয়েছে বলে ঝাড়গ্রাম স্টেশন কর্তৃপক্ষ জানান। শুক্রবার ট্রেন পরিষেবা চালুর আগেই বৃহস্পতিবার ট্রেনের টিকিট দেওয়া শুরু করেছিল ঝাড়গ্রাম স্টেশন কর্তৃপক্ষ।

আরও পড়ুন: কড়া দাওয়াই হাইকোর্টের…সরকারের দেওয়া অনুদান খরচ করা যাবে না পুজোর কাজে

বৃহস্পতিবারই ঝাড়গ্রাম স্টেশনের টিকিট কাউন্টার থেকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ট্রেনযাত্রিরা। টিকিট কেটেছিলেন। তবে ট্রেনের ভাড়া কিছুটা বেশি বলে যাত্রীরা জানান। তা সত্ত্বেও ট্রেন পরিষেবা চালু  হওয়ায় একশ্রেণীর নিত্যযাত্রী খুব খুশি। তারা বলেন যেভাবে গাড়িতে করে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত করতে হতো তার কিছুটা হলেও অবসান হল।তাই শুক্রবার সকাল থেকেই টাটা হাওড়া স্টিল এক্সপ্রেস কে স্বাগত জানানোর জন্য তৈরি ছিলেন ওই ট্রেনের যাত্রীরা। ঝাড়গ্রাম স্টেশনে ট্রেন এসে দাঁড়ালে  ট্রেনের চালক ও গার্ড কে ফুলের তোড়া দিয়ে অভিনন্দন জানান ওই ট্রেনের যাত্রীরা।

 

 

 

 

Related Articles

Back to top button
Close