fbpx
কলকাতাহেডলাইন

অশান্ত হুগলি! অমিতের হস্তক্ষেপ চাইলেন দিলীপ

শরণানন্দ দাস, কলকাতা: হুগলির অশান্তিকে কেন্দ্র করে বিজেপি সাংসদদের বিরুদ্ধে এফআইআর, সাধারণ মানুষের উপর পুলিশি নির্যাতনের বিরুদ্ধে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী আমিত শাহের হস্তক্ষেপ চাইলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। শনিবার সল্টলেকের বাসভবনে সাংবাদিক বৈঠকে দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘ হুগলির অশান্তি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ ব্যর্থ। লাগাতার সঙ্ঘর্ষ, উত্তজনায় জনজীবন ব্যাহত হয়েছে। নিজেদের অকর্মণ্যতা ঢাকতে বিজেপির দুই সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায় ও অর্জুন সিংয়ের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের হয়েছে।

মাননীয় দুই সাংসদের সঙ্গে সাধারণ আসামীদের মতো ব্যবহার করা হচ্ছে। হিন্দু জাগরণ মঞ্চের হংসরাজ জীকে ব্যারাকপুর থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে আটকে রাখা হয়েছে। আমি সমস্ত বিষয় জানিয়ে অমিতজিকে চিঠি দিচ্ছি। পাশাপাশি এই দাবি জানাচ্ছি হুগলিতে যেভাবে অশান্তি, সম্পত্তি নষ্টের ঘটনা ঘটেছে কোন কেন্দ্রীয় সংস্থাকে দিয়ে তদন্ত করার দাবি জানাচ্ছি।’
তিনি এদিন উত্তরপ্রদেশে দুর্ঘটনায় পরিযায়ী শ্রমিক নিহতের ঘটনায় গভীর দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

আরও পড়ুন: রাজ্যে ২৫০০ পেরোল আক্রান্তের সংখ্যা! ২৪ ঘণ্টায় ১১৫ জন করোনা পজিটিভ, মৃত আরও ৭, সুস্থ ৬৩: স্বরাষ্ট্রসচিব

এদিন ও তিনি রাজ্য সরকারের কাছে দ্রুত পরিযায়ী শ্রমিকদের ফেরানোর আবেদন জানান। মেদিনীপুরের সাংসদ বলেন, ‘উত্তরপ্রদেশ ৪৮৭ টা ট্রেন চালিয়েছে। ভিনরাজ্যের যে শ্রমিকরা ওখানে রয়েছেন তাঁদের থাকা, খাওয়ায় ব্যবস্থা করেছেন। আপনারা কি করেছেন, কটা ট্রেন চালিয়েছেন? আর আপনারা যে ১০৫ টা ট্রেনের কথা বলছেন তার কোন মাথাছাতা নেই। রোজ ৩০০ ট্রেন চালাচ্ছে রেল। আমি আবারও বলছি এখনও সময় আছে রেলের সঙ্গে সহযোগিতা করুন।’ প্রশ্ন ওঠে বিদেশ থেকে বিমানে ফেরানোর তালিকাতেও বাংলার নাম নেই। অথচ রাজ্য বিদেশমন্ত্রকে চিঠি পাঠিয়েছিল। দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘ কোন মেলে পাঠিয়েছিলেন, মেলেনি পৌঁছলো না। ওসব ধোঁকাবাজির রাজনীতি অন্য কোথাও করবেন।’

Related Articles

Back to top button
Close