fbpx
গুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

মুসলিম চাষিদের জমির ধান কেটে দিলেন আরএসএসের সদস্যরা

সুশান্ত ঘোষ, বনগাঁ: করোনা ভাইরাসের জেরে এমনিতেই গৃহবন্দি সাধারণ মানুষ। তার মধ্যে সাম্প্রতিক বৃষ্টিতে মাঠে কাঁটা ধান জলে ভাসছে। আর লকডাউনের ফলে অনেক কষ্টেও মিলছে না দিন মজুর। ফলে মাথায় আকাশ ভেঙে পড়েছে ভাগচাষিদের। এবারে ওই সমস্ত দুঃস্থ মুসলিম ভাগচাষিদের পাশে দাঁড়াল স্বয়ং সেবকরা।

জানা গিয়েছে, উত্তর ২৪ পরগণার বনগাঁ থানা অন্তর্গত গাঁড়াপোতা এলাকার ভাগচাষি আলম মণ্ডল ধান কেটে ছিলেন বৃষ্টির আগে। আর বৃষ্টির ফলে মাঠেই জলে ভিজেছে পাকা ধান। ভাগচাষি আলম মণ্ডলের পাশে দাঁড়িয়ে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলেন স্বয়ং সেবকরা। মাঠের জলের মধ্যে থেকে ধান তুলে দেন স্বয়ং সেবক সংঘের সদস্যরা।

এছাড়াও বিগত দিনে আরও ভাগচাষিদের এই বিপদে পাশে দাঁড়াচ্ছে স্বয়ং সেবকরা।
জানা গিয়েছে, বনগাঁ গ্রামীণ খন্ডের স্বয়ং সেবকবৃন্দের বিশ্বজিৎ গাইন, গোবিন্দ বিশ্বাস, ভবতোষ বিশ্বাস, প্রশান্ত মন্ডল, অর্জুন বিশ্বাস, প্রবীর সরকার-রা সকলে চুপি সারে বিগত কয়েক দিন ধরে মাঠে চাষিদের সঙ্গে হাত মিলিয়ে ফসল ঘরে তুলতে সাহায্য করছেন।

এদিন মাঠে কর্তব্যরত অবস্থায় বনগাঁ গ্রামীণ খন্ডের অন্যতম স্বয়ং সেবক বিশ্বজিৎ গাইন জানান, ‘কিছু ভাগচাষি দিন মজুরের অভাবে ধান কেটে বাড়ি নিতে পারছিলেন না, এমন খবর পেয়েছিলাম তাই তাদের পাশে দাঁড়িয়ে একটু সহযোগিতা কবার চেষ্টা করেছি।

বিজেপি নেতা গোবিন্দ বিশ্বাস বলেন, “কিছু চাষি এসে বলেন লকডাউনের ফলে এলাকায় দিনমজুর পাওয়া যাচ্ছে না। তাছাড়া তাদের কাছে নগদ টাকাও নেই। তাই তাদের পাশে আমরা স্বয়ং সেবকরা দাঁড়িয়েছি। মানুষের পাশে দাঁড়ানোটাই আসল ব্যাপার’’।

 

তবে স্বয়ং সেবক আরএসএসের অংশ এবং তীব্র হিন্দুত্ববাদী হিসাবে পরিচিত। আর সেই স্বয়ং সেবকদের এহেন কর্মে খুশি এলাকায় সাধারণ মানুষ।

Related Articles

Back to top button
Close