fbpx
আন্তর্জাতিকহেডলাইন

যুদ্ধ পরিস্থিতির তীব্রতা বোঝাতে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সঙ্গে তুলনা করলেন ইউক্রেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী

যুগশঙ্খ, ওয়েবডেস্ক: প্রায় একমাস পেরিয়ে গেলেও শান্ত হওয়ার নাম নেই। যুদ্ধ পরিস্থিতিতে দু পক্ষের মনোভাব চিন্তায় ফেলেছে গোটা বিশ্ব কে।

যুদ্ধ পরিস্থিতিতে আন্তর্জাতিক বাজারে বেড়েছে তেলের দাম। যার ফল গুনতে হচ্ছে।

 

ইউক্রেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী দিমিত্রো কুলেবা দনবাস অঞ্চলের আসন্ন যুদ্ধ পরিস্থিতির তীব্রতা বোঝাতে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সঙ্গে এর তুলনা করেছেন।

 

দিমিত্রো কুলেবা ব্রাসেলসে ন্যাটো সদর দফতরে একটি সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেওয়ার সময় বলেন, খুব দেরি করা যাবে না। কয়েক সপ্তাহ নয়, বরং কয়েকদিনের মধ্যে তাদের সাহায্যের প্রয়োজন।

কুলেবা ন্যাটো জোটের সদস্যদের উদ্দেশ্যে বলেন, তাদের চাই, ‘অস্ত্র, অস্ত্র, অস্ত্র’।

সতর্ক করে দিয়ে তিনি আরো বলেন, ‘এটি আপনাকে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের কথা মনে করিয়ে দেবে। বড় অভিযান… হাজার হাজার ট্যাঙ্ক, সাঁজোয়া যান, যুদ্ধবিমান ও গোলন্দাজ বাহিনীর অংশগ্রহণ।’

সম্মেলনে ন্যাটোর মহাসচিব জেনস স্টলটেনবার্গ বলেন, তাদের জোটে ইউক্রেনকে সামরিক সরঞ্জাম সরবরাহের বিষয়ে ‘আরো কিছু’ করতে প্রস্তুত। পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের শীর্ষ সম্মেলনের পর বক্তৃতাকালে তিনি বলেন, ‘সদস্যরা অবস্থার গুরুত্ব উপলব্ধি করছে।’

দনবাস হচ্ছে ইউক্রেনের ঐতিহ্যবাহী কয়লা ও ইস্পাত উৎপাদনকারী এলাকা। বৃহৎপূর্বাঞ্চলীয় এলাকাটির মধ্যেই রয়েছে লুহানস্ক এবং দোনেৎস্ক। রাশিয়া-সমর্থিত বিচ্ছিন্নতাবাদীরা ২০১৪ সালে অঞ্চলদুটির কিছু অংশে ‘প্রজাতন্ত্র’ ঘোষণা করেছিল। গত ফেব্রুয়ারির শেষের দিকে ভ্লাদিমির পুতিনের আক্রমণ শুরু হওয়ার পর থেকে রুশ বাহিনী সেখানে আরও বেশি ভূখণ্ড দখল করেছে।

Related Articles

Back to top button
Close