fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

কাঁথিতে ‘সুফল সবুজ’ বৃক্ষরোপণ কুইজ কেন্দ্রের

ভাস্করব্রত পতি, তমলুক : বিশ্ব পরিবেশ দিবস পালিত হোলো অন্যভাবে , অন্য ভাবনায়। মেদিনীপুর কুইজ কেন্দ্র সোশ্যাল ওয়েলফেয়ার সোসাইটি কাঁথি এলাকায় বিশ্ব পরিবেশ দিবসে প্রথাগত বৃক্ষ রোপনের সঙ্গে উপকূলবর্তী এলাকায় আমফান দুর্গত মানুষের কাছে পৌঁছে দিল খাদ্য সামগ্রী এবং শুরু করল তাঁদের ‘সুফল সবুজ’ বা Fruitful Green প্রকল্প। সকালে কাঁথি রেলস্টেশন সংলগ্ন এলাকায় ওষধি নিম গাছ লাগিয়ে দিনের কর্মসূচী শুভারম্ভ করেন কাঁথি রেলস্টেশনের দায়িত্বপ্রাপ্ত আর পি এফ আধিকারিক নন্দন কুমার দে।

 

 

সংগঠনের পথচলার অষ্টম বর্ষকে (২০১২ সাল থেকে) মাথায় রেখে মোট আটটি নিম গাছ লাগানো হয়। এরপর শৌলা মৎস্য বন্দর সংলগ্ন এলাকায় বগুড়ান জলপাই, রঘুসর্দারবাড় জলপাই, ঠাকুরচক, পদ্মপুট ও মছলন্দপুর গ্রামের ২৫ টি পরিবারের হাতে খাদ্য সামগ্রী হিসেবে আটা, বিস্কুট, সোয়াবিন, সুজি, ডাল, সর্ষে তেল ও একটি করে উচ্চ ফলনশীল L49 জাতের পেয়ারা চারা তুলে দেওয়া হয়।

 

 

সংগঠনের পক্ষ থেকে সোমনাথ ঘোড়াই জানান, আমফান বিধ্বস্ত কাঁথি উপকূল অঞ্চলের পুনর্গঠন ও উপকূলীয় মানুষের পুষ্টির বিষয় মাথায় রেখে পাঁচটি পর্যায়ে ২০০ টি পরিবারের হাতে একটি করে L49 পেয়ারা চারা তুলে দেওয়া হবে ‘সুফল সবুজ’ বা Fruitful Green প্রকল্পের মাধ্যমে। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য , পরিবেশ রক্ষায় সংগঠনের স্লোগান হল ‘আমাদের প্রতিদিন , প্রকৃতির সবুজে রঙীন’ বা Everyday is The ENVIRONMENT DAY।

 

 

 

এদিন পাঁশকুড়াতে বিশ্ব পরিবেশ দিবস উপলক্ষে বেশ কিছু গাছের নামকরন করা হলো মায়েদের নামকরন দিয়ে। কারন মায়েরাই সৃষ্টি ও রক্ষা কর্তা। বিশিষ্ট সমাজসেবী কল্যান রায় জানান, গাছই পারে বাঁচিয়ে রাখতে ও প্রকৃতির ভারসাম্য রক্ষা করতে। “জল জীবন গাছ প্রান” রক্ষা করা দায়িত্ব এখন সবার। এদিন উপস্থিত ছিলেন পাঁশকুড়ার বনদপ্তরের আধিকারিক, ওসি, আর পিএফ, রেঞ্জার অফিসার এবং জি আর পি এস।

Related Articles

Back to top button
Close