fbpx
দেশহেডলাইন

বিধায়কপদ বাতিল হলে রাজনীতির ময়দান থেকে বিদায় নেবেন পাইলট, দাবি ঘনিষ্ঠ সূত্রের

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক:  বেশ কিছু দিন ধরে রাজস্থান তো বটেই পাইলটের রাজনৈতিক ক্যরিয়ারে চাপানউতোর চলছে। একদিকে বিক্ষুব্ধ বিধায়কদের ডিসকোয়ালিফাই করতে মরিয়া গেহলট শিবির। অন্যদিকে নিজেদের বিধায়ক পদ ধরে রাখতে তৎপর শচিন পাইলট। তবে দুই শিবিরের স্নায়ুযুদ্ধে কিছুটা হলে ব্যাকফুটে চলে গিয়েছে পাইলট। জানা যাচ্ছে, আপাতত সুপ্রিম কোর্টের সিদ্ধান্তের জন্য বিদ্রোহী বিধায়করা অপেক্ষা করে আছেন। তবে শচিন পাইলটের মতে, তিনি যদি হেরে যান, তাহলে রাজনীতি থেকে বিদায় নেবেন তিনি।

সূত্রের খবর, নিজের ঘনিষ্ঠমহলে পাইলট জানিয়ে দিয়েছেন, তিনি এখনই কংগ্রেস ছাড়তে চান না। বিধায়ক পদ বাতিলের মামলায় যদি পরাস্ত হন, তাহলে রাজনীতিতে আর তাঁর কোনও ভূমিকা থাকবে না। অর্থাত্‍, রাজনীতি থেকেই বিদায় নিতে হবে তাঁকে। আর যদি আদালত তাঁর বিধায়কপদ বহাল রাখে, তাহলে কংগ্রেসের অন্দরে থেকেই নিজের অধিকারের জন্য লড়াই করতে চান তিনি।

পাইলট ঘনিষ্ঠরা শুরু থেকেই দাবি করে আসছেন, তাঁর বিজেপিতে যোগ দেওয়ার কোনও ইচ্ছা নেই। আবার রাজস্থানের কংগ্রেস সরকার ফেলে দেওয়ারও কোনও ইচ্ছা নেই। তিনি শুধু চান, মুখ্যমন্ত্রী বদলে দিতে। ওই সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের দাবি, পাইলট নিজের অনুগামীদের বলেছেন, গেহলট তাঁকে অপমান করলেও দলের কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব তাঁর সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করেনি।

আরও পড়ুন: বিজেপি রাজস্থানে নির্বাচিত সরকার ফেলার চেষ্টা করছে, তা কি জানেন? প্রশ্ন ছুঁড়ে, মোদিকে চিঠি গেহলটের

এদিকে রাজস্থান প্রদেশ কংগ্রেসের প্রাক্তন সভাপতি যখন এসব কথা বলছেন, তখনই সুপ্রিম কোর্ট তাঁকে বড়সড় স্বস্তি দিয়েছে। রাজস্থান হাই কোর্টে বিধায়কপদ খারিজের যে মামলা চলছিল, সেটি বন্ধ করে দেওয়ার দাবি নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করেছিলেন রাজস্থানের স্পিকার সিপি যোশী । কিন্তু যোশীর আবেদনের প্রেক্ষিতে হাই কোর্টের শুনানিতে হস্তক্ষেপ করতে অস্বীকার করেছে সুপ্রিম কোর্ট। শুক্রবার অর্থাত্‍ ২৪ জুলাই রাজস্থান হাই কোর্ট চাইলেই এই মামলার রায় দিতে পারে।

Related Articles

Back to top button
Close