fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

বিজেপিতে যাচ্ছেন না, সাফ জানিয়ে দিলেন পাইলট

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: রাজস্থানে টালমাটাল অশোক গেহলটের গদি। ঘরোয়া কোন্দল চরমে। রাজস্থানে শচীন পাইলট বনাম‌ অশোক গেহলট দ্বৈরথ চরমে। রবিবার সকালে হঠাৎ করেই নিজের অনুগামী বিধায়কদের সঙ্গে নিয়ে দিল্লি চলে আসেন রাজস্থানের উপমুখ্যমন্ত্রী তথা সেখানকার কংগ্রেস সভাপতি শচীন পাইলট। তারপরেই শুরু হয় জল্পনা। কংগ্রেসের অন্দরেই প্রশ্ন ওঠে, তবে কি এবার জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়ার পথে  হাঁটতে চলেছেন পাইলট। সোমবার বিজেপি সভাপতি জেপি নাড্ডার সঙ্গে পাইলট দেখা করবেন বলেও শোনা যায়। তার মধ্যেই  সমস্ত জল্পনার ওবসান ঘটিয়ে কংগ্রেস নেতা স্পষ্ট জানিয়েছে দিলেন, বিজেপিতে তিনি যাচ্ছেন না।

শচীন পাইলট বলেছেন, ‘বিজেপিতে আমি যাচ্ছি না।’ পাইলটের এই মন্তব্যের পরে প্রশ্ন উঠেছে, তাহলে দিল্লিতে কেন এলেন পাইলট। কেনই বা রাজস্থানের বৈঠকে উপস্থিত থাকলেন না তিনি। কেন ৩০ বিধায়কের সমর্থন তাঁর কাছে রয়েছে বলে ভয় দেখালেন। তবে কি কংগ্রেস শীর্ষনেতৃত্বকে তিনি এই বার্তা দেওয়ার চেষ্টা করছেন, যে তাঁর কথা মেনে নিলে বিজেপিতে যাবেন না তিনি। অন্যভাবে কি চাপ বাড়ানোর চেষ্টা করছেন রাজস্থানের কংগ্রেস সভাপতি। এদিকে সোমবার সকাল সাড়ে ১০টা নাগাদ একটি বৈঠকের ডাক দিয়েছেন রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট। এই বৈঠকে উপস্থিত থাকার জন্য কংগ্রেসের তরফে হুইপ জারি করা হয়েছে। যদিও শচীন পাইলট ও তাঁর অনুগামীরা এই বৈঠকে উপস্থিত থাকবেন না বলেই খবর। ইতিমধ্যেই সেই বৈঠক শুরুও হয়ে গিয়েছে। শচীন পাইলট ভয় দেখালেও রাজস্থানে কংগ্রেস সরকারের কোনও ভয় নেই বলেই দাবি করা হয়েছে দলের তরফে।

এই সঙ্কটজনক অবস্থা শুধু একজনের কৃতিত্বেই হয়েছে, তিনি হলেন রাজ্যের উপ মুখ্যমন্ত্রী তথা প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি শচিন পাইলট। তাঁর সমর্থনে রয়েছেন বিক্ষুব্ধ কমপক্ষে ৩০ জন কংগ্রেস বিধায়ক। আর এই সুযোগটাই এবার কাজে লাগাতে মরিয়া হয়ে পড়েছে গেরুয়া শিবির। শচিন সহ কংগ্রেস বিধায়কদের দলে টানতে একপ্রকার প্রস্তুতি নিয়েই ফেলেছিল বিজেপি। এমনকি আজ সভাপতি জেপি নাড্ডার সঙ্গে দেখা করতে পারেন শচিন, এমন খবরও প্রকাশ্যে আসে। শাহ-নাড্ডাদের এই স্বপ্নই এবার ভঙ্গ করলেন রাজেশ তনয়। এদিন একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যকে এই তরুণ কংগ্রেস নেতা স্পষ্ট জানিয়ে দেন, তাঁর কোনও ইচ্ছে নেই বিজেপিতে যাওয়ার। তাহলে কংগ্রেসকে শিক্ষা দিতে মরুরাজ্যের এই তরুণ তুর্কি নতুন দল গঠন করতে চলেছেন? সোমবার সকাল থেকে নয়া জল্পনা সৃষ্টি রাজ্য রাজনীতিতে।এমনই ইঙ্গিত দিয়েছেন তাঁর সহযোগী। সূত্রের খবর কংগ্রেস ছেড়ে নিজের রাজনৈতিক দল তৈরি করবেন তিনি। তবে তিনি যে আর কংগ্রেসে থাকবেন না সেটা অন্ততত নিশ্চিত হয়ে গিয়েছে সহযোগীর এই ইঙ্গিতই।

আরও পড়ুন: মরুরাজ্যে সংকটে কংগ্রেস! আজই জে পি নাড্ডার সঙ্গে দেখা পাইলটের

রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট অভিযোগ করছেন, রাজ্যে কংগ্রেস সরকার ফেলতে বিধায়কদের কোটি কোটি টাকার প্রলোভন দেখাচ্ছে বিজেপি। আর, উপমুখ্যমন্ত্রী এবং প্রদেশ কংগ্রেসের সভাপতি শচীন পাইলটের অভিযোগ, গোহলট তাঁকে ক্রমাগত কোণঠাসা করছেন। অনুগামী বিধায়কদের নিয়ে দিল্লিতে হাজির শচীন। সোমবার সকালে রাজস্থানের বৈঠকেই ঠিক হয়ে যাবে শচীন পাইলট ও তাঁর অনুগামীদের নিয়ে কী ভাবছে রাজস্থান কংগ্রেস। তাহলে পরবর্তী পদক্ষেপ নিতে সুবিধা হবে। যদিও বিজেপির আর এক নেতা জানিয়েছেন, মনস্থির নাকি করেই নিয়েছেন পাইলট। গেহলটের নেতৃত্বে তিনি নাকি আর থাকবেন না। তবে এই বিষয়ে কেউ এখনও কোনও বিবৃতি দেননি।

অন্যদিকে আবার বিজেপির একটা সূত্র দাবি করেছে, শচীন পাইলট যে বিজেপি সভাপতির সঙ্গে দেখা করবেন, তা প্রায় নিশ্চিত। এই বৈঠকেই পরবর্তী পদক্ষেপ ঠিক করবেন পাইলট। মধ্যপ্রদেশে কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়া জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া এই মুহূর্তে নাকি পাইলটের সঙ্গেই রয়েছেন।

Related Articles

Back to top button
Close