fbpx
দেশহেডলাইন

গালওয়ান উপত্যকায় শহিদ জওয়ানদের বলিদান ব্যর্থ হতে দেব না: বায়ুসেনা প্রধান

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্কলাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় চিনা সেনার হামলায় শহিদ হয়েছেন ভারতীয় সেনাবাহিনীর ২০ জওয়ান। দীর্ঘ ৫৩ বছর বাদে পূর্ব লাদাখে রক্ত ঝরেছে ভারতীয় সেনা। ফুঁসছে দেশবাসী। লাদাখে শহিদ জওয়ানদের বলিদান ব্যর্থ হতে দেব না, হুঙ্কার বায়ুসেনা প্রধানের। শনিবার হায়দরাবাদের কাছে একটি বায়ুসেনা অ্যাকাডেমিতে প্যারেডে অংশ নিয়ে একথা বলেন তিনি। এদিন বায়ুসেনা প্রধান বলেন, ‘লাদাখে ওই কঠিন পরিস্থিতিতে আমাদের জওয়ানরা যে বীরত্ব দেখিয়েছেন তা থেকেই দেশমাতার প্রতি তাঁদের আত্মত্যাগের প্রমাণ পাওয়া গিয়েছে। আমি পরিষ্কার করে দিতে চাই, যে কোনও পরিস্থিতিতে জবাব দেওয়ার জন্য আমাদের বায়ুসেনা তৈরি রয়েছে। গালওয়ান উপত্যকায় শহিদ জওয়ানদের বলিদান ব্যর্থ হতে দেব না।

ভাদোরিয়া আরও বলেন, ‘আমাদের দেশের সীমান্ত সুরক্ষার জন্য সেনাবাহিনীর যে জওয়ানরা মোতায়েন রয়েছেন তাঁরা প্রতি মুহূর্তে সজাগ ও প্রস্তুত রয়েছেন। ভারত ও চিনের মধ্যে যে কোনও পরিস্থিতি তৈরি হোক না কেন, আমরা তার জবাব দিতে প্রস্তুত। লাদাখে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা পেরিয়ে এসে চিনা সেনা যে হামলা করেছিল, তার যেভাবে জবাব দেওয়া হয়েছে তা থেকেই এটা প্রমাণিত যে খুব কম সময়ের মধ্যেও আমাদের সেনা কী করতে পারে। চিনা সেনা আমাদের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছে, তারপরেও সীমান্তে আমরা আলাপ আলোচনার মাধ্যমে শান্তি বজায় রাখারই পক্ষপাতি। কিন্তু দরকার হলে জবাব দিতে আমরা তৈরি।’ এর আগে গত বুধ ও বৃহস্পতিবার লাদাখে ভারতীয় বায়ুসেনার প্রস্তুতি দেখতে গিয়েছিলেন এয়ার চিফ মার্শাল।

আরও পড়ুন: দেশে একদিনে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা পেরিয়ে গেল ১৪ হাজারের গণ্ডি

উল্লেখ্য, গত সোমবার থেকেই উত্তপ্ত গলওয়ান উপত্যাকা। দুই দেশের সেনাবাহিনীর মধ্যে কয়েকদফা হাতাহাতিও হয়েছে, তাতে দু’পক্ষে মিলিয়ে প্রায় ৭০ জনের মৃত্যু ঘটেছে। আহত বহু। পরিস্থিতি এতটাই গম্ভীর পর্যায়ে চলে গিয়েছে যে, খোদ প্রধানমন্ত্রীও সাফ জানিয়ে দিয়েছে, পড়শি দেশের সঙ্গে আর কোনও আপোস নয়, পারলে অহিংসার পথেই এর মোকাবিলা করতে ভারতীয় সেনা প্রস্তুত।

Related Articles

Back to top button
Close