fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

সঞ্জয় দত্তের আরও কঠিন শাস্তিতে ও উত্তরবঙ্গ থেকে তাড়ানোর দাবীতে পথে নামল রাজবংশি-কামতাপুরি যৌথ মঞ্চ

কৃষ্ণা দাস, রাজগঞ্জ: সোনার মেয়ের বাড়িতে বেআইনি কাঠে হানা, অতঃপর রেঞ্জারের বদলি! প্রতিবাদে আন্দোলন, পাল্টা আন্দোলনে সামাজিক, সাম্প্রদায়িক ও রাজনৈতিক  উত্তাপ বাড়ছে উত্তরবঙ্গে। বেলাকোবার রেঞ্জ অফিসার সঞ্জয় দত্ত ও বিট আধিকারি পাঞ্চালি রায়কে বদলির প্রতিবাদে একদিকে যখন সাধারণ গ্রামবাসিদের আন্দোলন ঘনিভুত হচ্ছে!
ঠিক উল্টোদিকে এই দুই সরকারি আধিকারিকে আরও কঠিন শাস্তির দাবীতে জোরদার আন্দোলনের হুমকি দিয়ে পথে নামলো রাজবংশী – কামতাপুরি সম্প্রদায়ের ২১টি সংগঠনের যৌথ মঞ্চ। সোনা জয়ী স্বপ্না বর্মনকে কালিমালিপ্ত করার অভিযোগে সরকারি ওই দুই আধিকারিক উত্তরবঙ্গের বাইরে বদলির দাবিতে সরব হয়ে নতুন করে পালটা আন্দোলন শুরু করেছে বিভিন্ন রাজবংশী – কামতাপুরি সংগঠনের যৌথমঞ্চ। আর এই আন্দোলনের প্রাথমিক কর্মসূচীতে, শনিবার রাজবংশী – কামতাপুরি ইউনাইটেড ফোরামের পক্ষ থেকে শিলিগুড়ির অদূরে রাজগঞ্জের সাহুডাঙ্গিতে রেঞ্জার ও বিট আধিকারিকের কুশপুতুল দাহ করে বিক্ষোভ দেখানো হয়।
ফোরামের পক্ষে রবি রায় বলেন, সোনা জয়ী স্বপ্না বর্মনের বাড়িতে অন্যায়ভাবে অভিযান করেছেন বেলাকোবার রেঞ্জ অফিসার সঞ্জয় দত্ত। ওই ঘটনা শুধু স্বপ্না বর্মন নয়, গোটা উত্তরবঙ্গের রাজবংশী – কামতাপুরি সম্প্রদায়ভুক্ত জাতির সন্মানহানী করেছে রেঞ্জার। তাই রেঞ্জ অফিসার সঞ্জয় দত্ত ও বিট অফিসার পাঞ্চালি রায়কে বদলির নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়।  কিন্তু পরবর্তীতে দেখা যায় ওই দুই অফিসারকে শাস্তিমূলক বদলি না করে রেঞ্জ অফিসারকে পাহাড়ে এবং বিট অফিসারকে শিলিগুড়ির কাছেই সালুগাড়ায় বদলি করেছে সরকার।  তাই ওই বদলির তীব্র প্রতিবাদ জানাতে বিক্ষোভের মধ্যে দিয়ে আন্দোলন করা হয়। ওই দুই অফিসারকে উত্তরবঙ্গের বাইরে বদলি না করা হলে গোটা উত্তরবঙ্গ ব্যাপি আন্দোলন আরও তীব্র করা হবে বলে হুমকি দেন রবি রায়।
উল্লেখ্য, সম্প্রতি, শুকনো কাঠের বেশ কিছু লগ বাড়িতে বেআইনিভাবে মজুত ও ব্যবহার করার অভিযোগে এশিয়াডে সোনা জয়ী স্বপ্না বর্মনের বাড়িতে হানা দেয় বেলাকোবা রেঞ্জ অফিসের উত্তরবঙ্গ স্পেশাল টাস্ক ফোর্সের অফিসার সঞ্জয় দত্ত। এরপর এই হানা বা রেডের সমালোচনা করে বেলাকোবার ওই দুই আধিকারিককে বদলির নির্দেশ দেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়। এরপরই এই বদলি বাতিলের দাবীতে প্রতিবাদে আন্দোলন শুরু করে গোটা জঙ্গল লাগোয়া বনবস্তির সাধারণ মানুষ। আর এই নির্দেশ মনঃপুত না হওয়ায় পালটা আন্দোলন শুরু করে রাজবংশি – কামতাপুরি সম্প্রদায়ভুক্ত সংগঠন। ফলত, আইনি আর বেআইনির দোলাচলে করোনা আবহেও উত্তাপ বাড়ছে উত্তরবঙ্গে।

Related Articles

Back to top button
Close