fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

শতধারা প্রমিলা সংঘের উদ্যোগে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

ফিরোজ আহমেদ,ভাঙড়ঃ যিনি রাঁধেন তিনি চুলও বাঁধেন সে কথা আগেন প্রমান করেছেন কাশীপুরের মহিলারা।ঘর সংসার, অফিস-কাছারি সব সামলে কোমর বেঁধে ভাঙড়ের সেরা দুর্গা পুজো করে তাঁরা গোটা রাজ্যের নজর কড়েছেন।এখন লকডাউনের কঠিন সময়েও তাঁরা হাত গুটিয়ে বসে থাকতে নাজার।তাই নিজেরাই চাঁদা তুলে, বিভিন্ন জায়গায় তদ্বির করে জোগাড় করেছেন খাদ্য সামগ্রী।সোমবার কাশীপুরের ঘোষপুকুরে ক্লাব প্রাঙ্গণে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। যেখানে এলাকার দিন দুঃখী পরিবারের সদস্যদের হাতে কিছু খাদ্য সামগ্রী তুলে দেওয়া হয়।

 

ক্লাবের রীনা,জয়ন্তী, কাকলি,পাপিয়ারা সাধারণ মানুষের হাতে তুলে দেন চাল,ডাল,আলু,সোয়াবিন। ভাঙড় জুড়ে বিভিন্ন ক্লাব খাদ্য সামগ্রী দিলেও মহিলারা এই প্রথম এমন উদ্যোগ নিল। মহিলাদের এই উদ্যোগকে কুর্নিশ জানাতে অনুষ্ঠানে অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন লেদার কমপ্লেক্স থানার আইসি স্বরুপকান্তি পাহাড়ি ও কাশীপুর থানার ওসি বিশ্বজিৎ ঘোষ। স্বরুপ বাবু বলেন, ‘দুঃসময়ে মহিলাদের এই উদ্যোগে আমরা অভিভূত।মহিলাদের এই সংঘ আরও এগিয়ে যাক।‘ বিশ্বজিৎ বাবু বলেন, ‘এদের আন্তরিকতা ও উদ্যোগে আমি মুগদ্ধ।এই ক্লাবের সামর্থ না থাকলেও চেষ্টার কোন খামতি নেই।‘

 

অন্যদিকে, মঙ্গলবার বৃষ্টিভেজা দুপুরে শতাধিক পরিবারের হাতে খাদ্য সামগ্রী তুলে দিল নিউটাউনের স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা ‘প্রয়োজন’।সংস্থার সদস্যরা কাশীপুর চড়কপোতায় চাল, ডাল, আলু, সোয়াবিন, তেল, পেঁয়াজ সহ বিভিন্ন খাদ্য সামগ্রী তুলে দেন।পাশাপাশি চাল,ডাল নিতে আসা মানুষদের একটি করে মাস্ক দেওয়া হয়।যে মাস্কটি তৈরি করেছে রামকৃষ্ণ মিশন।সংস্থার কর্ণধার রাজকুমার মণ্ডল জানিয়েছেন, তাঁরা চড়কপোতা ছাড়াও বিভিন্ন হোম ও বৃদ্ধাশ্রমে নিয়মিত খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছেন সম্পূর্ণ বিনামূল্যে।

Related Articles

Back to top button
Close