fbpx
আন্তর্জাতিকহেডলাইন

রাষ্ট্রপুঞ্জের মানবাধিকার কাউন্সিলের সদস্য হতে ব্যর্থ সৌদি আরব

জেনেভা, (সংবাদ সংস্থা): জামাল খাশোগি হত্যাকাণ্ডের জের পিছু ছাড়ছে না সৌদি আরবের। মঙ্গলবার রাষ্ট্রপুঞ্জের মানবাধিকার কাউন্সিলের (ইউএনএইচসিআর) সদস্যপদের জন্য যে নির্বাচন হয়েছে তাতে প্রতিদ্বন্দ্বীদের কাছে বিপুল ভোটে হেরেছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সৌদি আরব। তবে, গোপন ভোটের মাধ্যমে ইউএনএইচসিআরের নতুন যে ১৫টি সদস্য দেশ নির্বাচিত হয়েছে, তার মধ্যে জায়গা করে নিয়েছে রাশিয়া, চিন, কিউবা।

মূলত, সব অঞ্চলের সমান অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে ভৌগলিক অবস্থানের ভিত্তিতে প্রার্থী নির্ধারণ করা হয় রাষ্ট্রপুঞ্জের সহযোগী এই সংস্থাটিতে।

জানা গেছে, এবারের নির্বাচনে এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের চারটি পদের জন্য লড়াই করেছে সৌদি আরব, চিনসহ মোট পাঁচটি দেশ। এই গ্রুপের নির্বাচনে পাকিস্তান ১৬৯ ভোট, উজবেকিস্তান ১৬৪, নেপাল ১৫০, চিন ১৩৯টি ভোট পেয়েছে। ফলে বাদ পড়ে মাত্র ৯০টি ভোট পাওয়া সৌদি আরব। আর, এশিয়া প্যাসিফিক গ্রুপের চারটি বিজয়ী আসনের মধ্যে সবচেয়ে কম ভোট পেয়েছে চিন। কিন্তু, নতুন সদস্য হিসেবে চিন-রাশিয়া নির্বাচিত হওয়ায় ব্যাপক ক্ষোভ দেখা দিয়েছে মানবাধিকার কর্মী ও সংস্থাগুলোর মধ্যে। চিন-সৌদি আরবকে বিশ্বের সর্বোচ্চ দুই নিপীড়ক সরকার হিসেবে মন্তব্য করেছে হিউম্যান রাইটস ওয়াচ। সিরিয়া যুদ্ধে যুদ্ধাপরাধের কথা প্রকাশ করে রাশিয়াকেও বিতর্কিত প্রার্থী হিসেবে উল্লেখ করেছে নিউনিয়র্ক-ভিত্তিক সংগঠনটি।

বিশ্লেষকরা বলছেন, মানবাধিকার রক্ষায় প্রশ্নবিদ্ধ অবস্থান নিয়েও একাধিক দেশ সদস্যপদ পাওয়ায় ইউএনএইচসিআরের বর্তমান নির্বাচনী ব্যবস্থায় পরিবর্তন আনা আবশ্যক হয়ে দাঁড়িয়েছে। তবে মঙ্গলবারের নির্বাচনে অন্তত একটি বিষয় পরিষ্কার যে, বিভিন্ন বিতর্কিত পদক্ষেপের কারণে সৌদি আরব আন্তর্জাতিক অঙ্গনে সুনাম হারিয়েছে। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে কলামনিস্ট জামাল খাশোগি হত্যাকাণ্ডের রেশও সৌদি আরবের উপর ভালো পড়েছে।

এপ্রসঙ্গে খাশোগি প্রতিষ্ঠিত ‘ডেমোক্রেসি ফর আরব ওয়ার্ল্ড নাও’ সংস্থার কার্যনির্বাহী পরিচালক সারা লিয়া হুইটসন বলেছেন, সৌদি ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন তার বর্বরোচিত কর্মকাণ্ডের জন্য জনসংযোগে ব্যয় করেছেন কয়েক মিলিয়ন ডলার, কিন্তু আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে তা দিয়ে কেনা যায়নি।’ হুইটসন আরর বলেছেন, ‘রাজনৈতিক বন্দীদের মুক্তি দেওয়ার জন্য নাটকীয় সংস্কার না করা, ইয়েমেনে তার ধ্বংসাত্মক যুদ্ধের অবসান ঘটাতে এবং তার নাগরিকদের অর্থবহ রাজনৈতিক অংশগ্রহণের অনুমতি না দেওয়ার জন্য সৌদি আরব আন্তর্জাতিক মহলে ‘প্যারিয়া’ (নীচ জাতি) হিসাবে উল্লেখিত হবে।’

উল্লেখ্য, এদিন আফ্রিকা মহাদেশ থেকে চারটি আসন জিতেছে আইভরি কোস্ট, মালাউই, গ্যাবন এবং সেনেগাল। পূর্ব ইউরোপের দুটি আসন জিতেছে রাশিয়া ও ইউক্রেন। লাতিন আমেরিকান এবং ক্যারিবিয়ান গ্রুপে তিনটি আসনে জিতেছে মেক্সিকো, কিউবা এবং বলিভিয়া। পশ্চিম ইউরোপ এবং অন্যান্য গ্রুপের দুটি আসন জিতেছে ব্রিটেন এবং ফ্রান্স।

আরও পড়ুন:হিন্দু শরনার্থীদের স্বার্থে সিএএ কবে লাগু হবে প্রশ্ন সুবোধের

তবে, এদিন ফলাফল ঘোষণার পর হিউম্যান রাইটস ওয়াচের প্রধান লুই চার্বনো বলেছেন, ‘অতিরিক্ত প্রার্থী থাকলে চিন, কিউবা ও রাশিয়াও হেরে যেত।’ একইসঙ্গে তিনি সৌদি আরব প্রসঙ্গে বলেছেন,’মানবাধিকার কাউন্সিলের একটি আসনে জয়ী হওয়ার ক্ষেত্রে সৌদি আরবের ব্যর্থতা হল আমেরিকার নির্বাচনী প্রতিযোগিতায় প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার বিষয়টি স্মরণ করিয়ে দেওয়া।’

Related Articles

Back to top button
Close