fbpx
কলকাতাহেডলাইন

‘যত মত তত পথ’, পাল্টা অমিত শাহকে বার্তা সৌগত রায়ের

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক:  রামকৃষ্ণ দেব বলে গিয়েছেন যত মত তত পথ। দক্ষিণেশ্বরে দাঁড়িয়ে অমিত শাহের আক্রমণের পাল্টা জবাব দিলেন তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ সৌগত রায়। দক্ষিণেশ্বরের মন্দিরে পুজো দিয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে অমিত শাহ বলেন, বাংলার চেতনারভূমিতে তোষণের রাজনীতি চলছে। তারপরেই সৌগত রায়ের এই পাল্টা আক্রমণ। তিনি অভিযোগ করেছেন যে পূন্যভূমিতে দাঁড়িয়ে অমিত শাহ এই মন্তব্য করেছেন সেখানেই স্পষ্ট হয়ে গিয়েছে বিজেপির মানসিকতা।

তার পাল্টা জবাবে তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ সৌগত রায় বলছেন, যে খানে দাঁড়িয়ে অমিত শাহ এই অভিযোগ করেছেন তিনি জানেন না রামকৃষ্ণ দেবই বলে গিয়েছেন যত মত তত পথ। অর্থাত্‍ সব ধর্মের সমান অধিকার রয়েছে। সেই চেতনাই তাঁর তৈরি হয়নি। দক্ষিণেশ্বরের পূন্যভূমিতে অমিত শাহের এই মন্তব্য অত্যন্ত দুঃখজনক বলে মন্তব্য করেছেন সৌগত রায়।

ভোটে জিতে ক্ষমতায় আসার পর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বে রাজ্যে সোনার বাংলা গড়বে বিজেপি। বাঁকুড়ায় দাঁড়িয়ে এ কথা বলে এদিন বিজেপি–র লক্ষ্য আরও পরিষ্কার করে দিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। কিন্তু সে ব্যাপারে সৌগত রায় কটাক্ষ করে বলেন, ‘‌ওঁরা ক্ষমতাই পাবেন না, সোনার বাংলা কী করে তৈরি করবেন!‌’‌ তাঁর প্রশ্ন, ‘‌বিজেপি যে সব রাজ্যে ক্ষমতায় রয়েছে সেখানে কি সোনার রাজ্য তৈরি হয়েছে?‌’‌ উত্তরপ্রদেশ, গুজরাট আর কর্নাটকের উদাহরণ এদিন তুলে ধরেন তৃণমূল সাংসদ। তিনি বলেন, ‘‌অমিত শাহ নিজের পার্টিকে সামলাক। ওরা যেভাবে নিজেদের মধ্যে লড়াই–ঝগড়া করছে, আগামী দিনে নিজেদের মধ্যেই খুনোখুনি লেগে যাবে।’‌

দক্ষিণেশ্বরের মন্দির প্রাঙ্গনে দাঁড়িয়ে অমিত শাহ যে অভিযোগ করেছেন তাতেই স্পষ্ট হয়ে গিয়েছে বিভাজনের রাজনীতি করছে বিজেপি। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এক মাত্র মুখ্যমন্ত্রী যাঁর চেষ্টাতেই কোভিড পরিস্থিতিতেও বাংলায় দুর্গাপুজো হয়েছে। পুরোহিতদের ভাতা দেওয়া হয়েছে। বাংলার মানুষ এই ধরনের বক্তব্য প্রত্যাখ্যান করবে বলে দাবি করেছেন সৌগত রায়।

আরও পড়ুন: ‘‌ট্রাম্প যা পারেননি, মোদি করে দেখিয়েছেন’, করোনা মোকাবিলায় ব্যর্থ আমেরিকা! নাড্ডার

বাংলার মানুষের সঙ্গে যে তাঁদের আত্মিক যোগ রয়েছে তাই প্রমাণেই পণ্ডিত অজয় চক্রবর্তীর বাড়িতে হাজির হয়েছেন অমিত শাহ। এমনই মনে করছে রাজনৈিতক মহল। গতকাল তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী অভিযোগ করেছিলেন বহিরাগতদের বাংলা মেনে নেবে না। বাংলার সঙ্গে এঁদের কোনও আত্মিক যোগ নেই। তারপরেই বাংলা এবং বাঙালি মানসিকতার সঙ্গে আত্মিক যোগ প্রমাণেই মরিয়া হয়ে উঠেছে বিজেপি। সেকারণেই কলকাতা সফরে এসে একের পর এক চমক তৈরি করেছেন অমিত শাহ।

মমতা সরকারের মৃত্যুঘণ্টা বেজে গিয়েছে বলে গতকাল হুঙ্কার দিয়েছেন অমিত শাহ। এই কথাকে একেবারেই গুরুত্ব দিতে নারাজ সৌগতবাবু। তিনি বলেন, ‘‌পশ্চিমবঙ্গের মানুষ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারের সঙ্গে আছেন এবং থাকবেন। এখানে বিজেপি–র কোনও রাজনৈতিক গ্রহণযোগ্যতা হয়নি। অমিত শাহ যা বলেছেন তার কোনও রাজনৈতিক প্রভাবও পড়বে না। পশ্চিমবঙ্গে দলিত, আদিবাসী, গরিবদের স্বার্থ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার দেখছে এবং আগামীতেও দেখবেন।’‌

Related Articles

Back to top button
Close