fbpx
গুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

বিজেপি ক্ষমতায় এলে দিতে হবে না কোনো বিদ্যুৎ-এর বিল: সায়ন্তন বসু

নিজস্ব প্রতিনিধি, ঝাড়গ্রাম: শনিবার ঝাড়গ্রাম জেলা শাসকের দফতরে অবস্থান বিক্ষোভে ডেপুটেশন কর্মসুচিতে যোগ দিতে এসেছিলেন বিজেপির রাজ্য সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু।

তিনি বলেন, “বিজেপি রাজ্যে ক্ষমাতায় এলে বিদ্যুৎ বিল দিতে হবে না,বিদ্যুৎ বিল মুকুব করে দেব এদিন শহরের পাঁচ মাথা মোড়ে এ কথা বলেন সায়ন্তন বাবু। এদিন ঝাড়গ্রাম জেলা বিজেপির পক্ষ থেকে দলীয় কার্যালয় থেকে মিছিল করে এসে ঝাড়গ্রামের জেলা শাসাকের দফতরের সামনে অবস্থান বিক্ষোভ এবং ডেপুটেশন কর্মসুচি ছিল।কিন্তু মিছিল এগোতেই পাঁচমাথা মোড়ে পুলিশ আটকে দেয় ।সেখানে পুলিশের সাথে বাক্য মিনিয়ের পর বিজেপির পক্ষ থেকে জেলা শাসকের দফতরে অবস্থান বিক্ষোভ,ডেপুটেশেন কর্মসুচি বাতিল হয়।

জেলা বিজেপির সভাপতি সুখময় শতপথি বলেন “ পুলিশের বাধা দেওয়ায় আমাদের অবস্থান বিক্ষোভ,ডেপুটেশন দেওয়া হয়নি।আমারা ঝাড়গ্রাম থানার পুলিশের কাছে ডেপুটেশনের পত্রটি তুলে দিয়েছি।ওনারা বলেছেন যথা স্থানে পৌছে দেবেন।”

এদিন ঝাড়গ্রাম শহরের পাঁচ মাথা মোড়ে পুলিশি নিরাপত্তার মধ্যে বিজেপি নেতৃত্ব বক্তব্য রাখেন।বক্তব্য রাখেন বিজেপির রাজ্য সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু,ঝাড়গ্রাম জেলা বিজেপির সভাপতি সুখময় শতপথি,ঝাড়গ্রামের সাংসদ কুনার হেমরম।এদিন সায়ন্ত বসু রাজ্য সরকার এবং তৃণমূ্‌লকে তুলাধনা করে তাঁর বক্তব্য রাখেন।তিনি বলেন “ পশ্চিমবঙ্গ সরকার স্থির করেছেন ভারতীয় জনতা পার্টিকে প্রত্যেক দিন রাস্তায় দেখাতে চান।তারা কোনদিন বিধায়ককে খুন করছে,কোনদিন আমাদের নামে কেস দিচ্ছেন,কোনদিন তেইশ বছরের যুবককে খুন করছে তৃণমূলের গুন্ড।আমাদের কাছে খবর আছে এখানে পুলিশ ,প্রশাসন মাওবাদীদের সাথে মিলে ভারতীয় জনতা পার্টির কর্যকর্তাদের খুন করতে চায়।মিথ্যা মামলা দিতে চায়।পুলিশ,প্রশাসন মনে করে তারা বিজেপি নেতাদের ফোন ট্যাপ করে বাহাদুরি করছে।আমরা বলতে চাই আপনারা ফোন ট্যাপ করলে আমাদেরও ক্ষমতা আছে আপনাদের ফোন ট্যাপ করার।”

এছাড়াও সায়ন্তনবাবু আমফানের কেন্দ্রীয় টাকার দুর্নীতি , প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজানার টাকা নয়ছয় সহ বিভিন্ন দূর্নীতির অভিযোগ তোলেন তৃণমূলের বিরুদ্ধে।

Related Articles

Back to top button
Close