fbpx
কলকাতাপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

শ্রাবণেও চাতকের দশা দক্ষিণবঙ্গের, ভারী বৃষ্টির হাত থেকে রেহাই মিলবে না উত্তরবঙ্গের

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক:  ভারী বৃষ্টির হাত থেকে রেহাই মিলবে না উত্তরবঙ্গের। এমনটাই জানাচ্ছে হাওয়া অফিস। আগামী কয়েক ফের ঝেঁপে বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতে। মৌসুমী অক্ষরেখা হিমালয়ের পার্বত্য এলাকায় অবস্থান করবে। তার জেরে উত্তরবঙ্গ, সিকিম-সহ উত্তরের পার্বত্য এলাকায় ভারী বৃষ্টি হবে। অন্যদিকে, অস্বস্তিকর গরমে নাজেহাল কলকাতা। শ্রাবণেও চাতকের দশা দক্ষিণবঙ্গের। আজ বুধবার ও আগামী ২৪ ঘণ্টা অর্থাত্‍ বুধবার, দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টির তেমন সম্ভাবনা নেই। এমনটাই পূর্বাভাস আলিপুর আবহাওয়া দফতরের। আপাতত যা বৃষ্টি হবে তা অতিরিক্ত আর্দ্রতা থেকে তৈরি হওয়া বজ্রগর্ভ মেঘে। আপাতত দক্ষিণবঙ্গে বহাল থাকবে রোদ। গাঙ্গেয়বঙ্গ আপাতত বৃষ্টি পাচ্ছে বজ্রগর্ভ মেঘের দৌলতে। বাতাসে জলীয় বাষ্পের পরিমাণ বেশি রয়েছে। তার ফলে গরম হয়ে বায়ুমন্ডলের উপরের স্তরে উঠে ঘনীভূত হয়ে মেঘ তৈরি করছে এবং তা থেকে স্থানীয় ভাবে বৃষ্টি হচ্ছে। সেই সঙ্গে ভ্যাপসা গরমে নাকাল হতে হচ্ছে গাঙ্গেয় বঙ্গের বাসিন্দাদের।

আবহাওয়ার পূর্বাভাস অনুযায়ী উত্তরবঙ্গের দার্জিলিং, কোচবিহার, জললপাইগুড়ি, আলিপুরদুয়ার, কালিম্পঙে বৃষ্টি চলবে আগামী কয়েকদিন। ইতিমধ্যেই ভাসছে উত্তর। তার উপরে এই ৫ জেলায় ফের বুধবার পর্যন্ত প্রবল বর্ষণের সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানাচ্ছে হাওয়া অফিস। বর্ষাকালের ক্ষেত্রে মৌসুমি অক্ষরেখার অবস্থান নির্ধারণ করে বৃষ্টিপাতের পরিমাণের উপর। এমনিতেই উত্তরবঙ্গে বৃষ্টির পরিমাণ বেশি হচ্ছে এই বছর। তার মধ্যে এ বার অক্ষরেখা হিমালয়ের পাদদেশে থিতু হওয়ায় ফলে সেখানে বৃষ্টির পরিমাণ বেশি হচ্ছে। এ পর্যন্ত জলপাইগুড়ি, কোচবিহার, আলিপুরদুয়ারের বহু এলাকায় বেশ কয়েকদিন অতি ভারী বর্ষণ হলেও বড়সড় বন্যার মুখে পড়েনি উত্তরবঙ্গ।

আরও পড়ুন: ব্যবসা বন্ধেও করোনা গাইডলাইন মেনে বিনা চাঁদাতেই পুজোয় মাতৃবন্দনা সোনাগাছির

মৌসুমি অক্ষরেখা জুনের শেষ থেকে বেশিরভাগ সময় হিমালয়ের পাদদেশে অবস্থান করছে। সেখান থেকে বিশেষ নড়ছে না। দক্ষিণবঙ্গে কয়েকদিনের জন্য এলেও তা তেমন সক্রিয় থাকছে না। তা উত্তরের দিকে অবস্থান করায় নেপাল, বিহার, উত্তরবঙ্গ, সিকিম, উত্তর-পূর্ব ভারতে বৃষ্টি ধরছেই না। গত ক’দিনে বন্যা পরিস্থিতির সামান্য উন্নতি হতে শুরু করেছিল। আবহাওয়া দফতর আবার জুলাইয়ের শেষ দু’-তিন দিনে প্রবল বৃষ্টির আভাস দিয়েছে এই অঞ্চলে।

গত কয়েক দিনে বর্ষার যা মতিগতি তাতে মাসের শেষে দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টির ঘাটতি বাড়বে বলে আশঙ্কা করছেন আবহাওয়া বিজ্ঞানীরা। ভাগীরথীর জল বাড়ার মালদা, মুর্শিদাবাদ, বর্ধমানের সংশ্লিষ্ট অঞ্চলগুলি নিয়ে আতঙ্ক বাড়ছে। তবে গত এক সপ্তাহে গাঙ্গেয় বঙ্গে বড় ঘাটতি হলেও সার্বিক ভাবে এখনও দক্ষিণবঙ্গের বর্ষা স্বাভাবিক।

 

 

Related Articles

Back to top button
Close