fbpx
হেডলাইন

করোনাযুদ্ধে প্রয়াত বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ-সমুদ্রবিজ্ঞানী আনন্দদেব মুখোপাধ্যায়

অভীক বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতা: পরমাণু বিজ্ঞানীর পর এবং এবার বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ-সমুদ্রবিজ্ঞানী। বাঙালি মেধার জগতে ফের এক নক্ষত্রপতন। ১০ দিনের লড়াই থেমে গেল বৃহস্পতিবার সকালে। প্রয়াত হলেন বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ-সমুদ্রবিজ্ঞানী তথা বিদ্যাসাগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন উপাচার্য আনন্দদেব মুখোপাধ্যায়।

 

দক্ষিণ কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন তিনি। সেখানেই এদিন তাঁর মৃত্যু হয়। বয়স হয়েছিল ৭৫ বছর। আনন্দদেববাবুর স্ত্রী বেশ কয়েক বছর আগেই মারা গিয়েছেন। একমাত্র মেয়েও থাকেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে। দক্ষিণ কলকাতার ফ্ল্যাটে একাই থাকতেন আনন্দদেববাবু। এদিন কোভিড প্রোটোকল মেনে তাঁর শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়েছে।
রাজ্যের সাক্ষরতা আন্দোলনের অন্যতম নেতৃত্ব ছিলেন তিনি। অধ্যাপনার বাইরেও প্রত্যন্ত অঞ্চলে সাক্ষরতা আন্দোলন পৌঁছে দিতে বছরের পর বছর কাজ করেছিলেন তিনি। বামপন্থী মতাদর্শে বিশ্বাসী ছিলেন। নিজের লেখা ও গবেষণার কাজেও সে কথা অকপটে বলতেন এই শিক্ষাবিদ। সমুদ্রবিজ্ঞানী হওয়ার কারণে বামফ্রন্ট সরকারের সময়ে দিঘা উন্নয়ন পর্ষদেও ছিলেন তিনি।
২০১২ সালে ওড়িশার নবীন পট্টনায়েক সরকার পুরী বিচের দূষণ ঠেকানোর জন্য একটি বিশেষজ্ঞ কমিটি গড়েছিল। তাতেও অন্যতম পরামর্শদাতা ছিলেন বর্ষীয়ান শিক্ষাবিদ। বিশিষ্ট এই শিক্ষাবিদের মৃত্যুতে শোকের ছায়া শিক্ষা মহলে। আনন্দদেববাবুর মৃত্যুতে শোক বার্তা জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও।
তাঁর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করা হয়েছে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকেও  ।

Related Articles

Back to top button
Close