fbpx
গুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

তৃণমূল ও কেন্দ্রীয় বাহিনীর নিরাপত্তারক্ষীদের হাতাহাতিতে উত্তাল শ্রীরামপুর, গ্রেফতার বিজেপির রাজ্য নেতা

তাপস মন্ডল হুগলি: বিজেপির রাজ্য নেতা কোবির শংকর বসুর বাড়ি ও গাড়িতে হামলার অভিযোগে উত্তাল হল শ্রীরামপুর। রবিবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে শ্রীরামপুর থানার শ্মশানকালী চত্তর এলাকায়। এই গোটা ঘটনায় অভিযোগের তীর তৃণমূলের দিকে।
স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, এদিন রাতে বিজেপি রাজ্য নেতা কোবির শংকর বসু বিয়ে বাড়ি যাবেন বলে বাড়ি থেকে বের হয়েছিলেন। সেই সময় তৃণমূলের এক কাউন্সিলরের নেতৃত্বে তৃণমূলের বেশ কিছু নেতাকর্মী বিজেপি রাজ্য নেতার বাড়ির দরজা ঘেরাও করে বসে ছিলেন বলে অভিযোগ। বিজেপির ওই নেতাকে তার বাড়ি থেকে বের হতে বাধা দেওয়ার অভিযোগ ওঠে তৃণমূলের নেতা কর্মীদের বিরুদ্ধে। এই ঘটনায় কোবির বাবু নিরাপত্তারক্ষীরা বিক্ষোভকারীদের চলে যেতে অনুরোধ করেন। কিন্তু তৃণমূলের নেতা কর্মীরা ঘটনাস্থল ছেড়ে যেতে নারাজ ছিলেন বলে অভিযোগ।
এই ঘটনায় প্রবল উত্তেজনা ছড়ায়। নিরাপত্তারক্ষী ও তৃণমূল নেতা কর্মীদের সঙ্গে হাতাহাতি শুরু হয়। এরপর ভাঙচুর করা হয় করির বাবুর বাড়ি ও গাড়ি। এই ঘটনায় দুপক্ষের কয়েকজন আহত হন। ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে হাজির হন শ্রীরামপুর থানার পুলিশ বাহিনী। একই সঙ্গে ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে যোগ দেন শ্রীরামপুরের সাংসদ কল্যান বন্দ্যোপাধ্যায়। সব মিলিয়ে প্রবল উত্তেজনার সৃষ্টি হয় শ্মশানকালী চত্তর এলাকা।
এই প্রসঙ্গে কোবির শংকর বসু বলেন, আমি বিয়ে বাড়ি যাবার জন্য বাড়ি থেকে বের হয়েছিলাম। সেই সময় তৃণমূলের লোকজন আমার ওপর ও আমার গাড়ির ওপর হামলা চালায়। আমার নিরাপত্তারক্ষীরা নিজেদের বাঁচাতে যা যা করার করেছেন।
বিজেপির নেতা কর্মীরা অভিযোগ করে বলেন, সারা রাত শ্রীরামপুর থানার পুলিশ আমাদের রাজ্য নেতার বাড়ি ঘেরাও করে রাখেন। সোমবার দুপুরে চা খাওয়ানোর নাম করে বাড়ি থেকে বেড় করে রাজ্য নেতা কবীর শঙ্কর বসুকে জামিন অজগ্য ধারায় গ্রেফতার করে কোর্টে পাঠিয়ে দেন। এই ঘটনার খবর পেয়ে শ্রীরামপুর ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখান বিজেপির নেতা কর্মীরা। সেই বিক্ষোভে হাজির হয় হুগলির সাংসদ লকেট চ্যাটার্জী। এদিন ওই বিক্ষোভ চলাকালিন লকেট চ্যাটার্জী বলেন, তৃণমূলের কথা মত পুলিশ সারা রাত করির শঙ্কর বসুর বাড়ি ঘিরে রেখেছিলেন। সকালে চা খাওয়ানোর নাম করে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। রাজ্য জুড়ে পুলিশ দলদাসের মত কাজ করছে। শাসকের অঙ্গুলি হিলনে কাজ করছে। হিটলারি সরকারে হয়ে কাজ করছে।
এই প্রসঙ্গে বিজেপির শ্রীরামপুর সাংগঠনিক জেলার সাধারন সম্পাদক কৃষান সাউ বলেন, তৃণমূলের পায়ের তলা থেকে মাটি সরে গিয়েছে। গুন্ডা বাহিনী নিয়ে তৃণমূল চলাফেরা করছে। মানুষ এর উত্তর দেবেন। যদিও এই প্রসঙ্গে তৃণমূলের হুগলি জেলা সভাপতি দিলীপ যাদব কিছুই মন্তব্য করতে চাননি। শুধু বলেন, বিজেপির লকেট চ্যাটার্জী যেখানেই রাজনৈতিক কর্মসূচী করবেন। আমরা তার পাল্টা কর্মসূচী করব। যদিও এই প্রসঙ্গে জানতে চন্দননগর পুলিশ কমিশনারেটের একাধিক পুলিশ কর্তাকে ফোন করা হলে কেউ ফোন ধরেন নি। তাই এই প্রসঙ্গে পুলিশের কোনও বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

Related Articles

Back to top button
Close