fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

বেলেঘাটা আইডির ভিতরে কর্মী আবাসনেই ৭ জন করোনা আক্রান্তের হদিশ

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: করোনা সংক্রমণ রুখতে সবচেয়ে অগ্রণী ভূমিকা নিয়েছে বেলেঘাটা আইডি হাসপাতাল। আর এবার হাসপাতালের ভিতরেই কর্মী আবাসনে সাত করোনা রোগীর খোঁজ মিলল একই সঙ্গে।

এ রাজ্যে করোনা সংক্রমণের শুরু থেকেই এই বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালেই করোনা সন্দেহে রোগীদের ভর্তি করা, বিদেশ থেকে আসা মানুষের পরীক্ষা নিরীক্ষা, অন্য রাজ্য থেকে আসা মানুষের শারীরিক পরীক্ষা সহ যাবতীয় করোনা সম্পর্কিত পরীক্ষা নিরীক্ষা হচ্ছিল। কিন্তু এখানকার কর্তব্যরত কেউ প্রথম দিকে করোনা আক্রান্ত না হওয়ায় অনেকটাই স্বস্তিতে ছিল আইডি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। তবে মাসখানেক আগে দুই সাফাই কর্মী প্রথম করোনা আক্রান্ত হয়। তার পর থেকেই করোনা সংক্রমণ বাড়ে। তবে সম্প্রতি ফের হাসপাতাল করোনা সংক্রমণ মুক্ত হয়ে উঠেছিল।

প্রসঙ্গত, বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালের ভিতরেই কর্মী আবাসন। এই কর্মী আবাসনের ভিতরে মূলত হাসপাতালের চতুর্থ শ্রেণীর কর্মীরা থাকেন। সোমবার থেকে এই কর্মী আবাসনের ৩ সাফাই কর্মীর পরিবারের ৭ সদস্যের জ্বর, কাশি,গলা ব্যথা এর মত করোনা উপসর্গ দেখা দেয়। বুধবার তাদের লালা রসের নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়। বৃহস্পতিবার সেই নমুনার রিপোর্ট আসলে দেখা যায় এই ৭ জনেরই করোনা পজিটিভ। করোনা আক্রান্ত ৭ জনকেই বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এদের শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। করোনা আক্রান্ত এই ৭ জনের সংস্পর্শে কারা কারা এসেছিলেন, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। প্রত্যেককে চিহ্নিত করে কোয়ারেন্টাইন করা হবে বলে জানিয়েছে আইডি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালের রোগী কল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যান তথা কলকাতা পুরসভার মেয়র পারিষদ স্বপন সমাদ্দার জানিয়েছেন, “আতঙ্কিত হওয়ার কোনো কারণ নেই। গোটা কর্মী আবাসন জীবাণুমুক্ত করা হবে। করোনা আক্রান্ত প্রত্যেকে সুস্থ আছে। প্রতিদিনই এখানকার গ্রুপ ডি কর্মীদের শারীরিক পরীক্ষা করানো হচ্ছে।” তবে ওই কর্মী আবাসন নিয়মিত পরিষ্কার করা হয় না, এমনটাই অভিযোগ করেছেন সেখানকার বাসিন্দারা।

Related Articles

Back to top button
Close