fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

কোলাঘাটে উচ্ছেদ অভিযানে ভেঙে গুঁড়িয়ে দেওয়া হল দোকান সহ বেশ কয়েকটি বাড়ি

বাবলু ব্যানার্জি, কোলাঘাট: নিকাশি ব্যবস্থা সহ বেশ কয়েকটি দাবি নিয়ে কোলাঘাটে ভারতীয় জনতা পার্টি পথে নামার ২৪ ঘন্টার মধ্যে প্রশাসনকে পদক্ষেপ নিতে দেখা গেল।  কোলাঘাটের বিবেকানন্দ মূর্তির সামনে থেকে কোলাঘাট প্রশাসনিক ভবন পর্যন্ত পঞ্চাশটির মত দোকান ঘর সহ বসত বাড়ি ভেঙে গুঁড়িয়ে দিল বুলডোজারে।

তবে বিজেপির আন্দোলনের প্রেক্ষিতে  প্রশাসন যে উচ্ছেদ অভিযানে নেমেছে তা প্রশাসনিকভাবে শিকার করা হয়নি। প্রশাসনিক ভাবে বলে দেওয়া হয়েছে যে, বেশ কয়েকমাস ধরে কোলাঘাট জশাড় রাস্তা সম্প্রসারণ এর জন্য সরকারি  জায়গায় অবৈধভাবে দোকান ঘর ও বসতবাড়ি গজিয়ে ওঠেছিল। তা ফাঁকা করে দেওয়ার জন্য নির্দেশ পাঠানো হয় দখলকারীদের। সাধারণ মানুষের স্বার্থেই এই প্রশাসনিক উদ্যোগ। কোলাঘাট থানার পুলিশ সহ ব্যাপক পুলিশ বাহিনি নামিয়ে বেলা দশটা থেকে বিকেল পর্যন্ত এই অভিযান চলে।

রূপনারায়ণের জোয়ারে কোলাঘাট শহরসহ আশপাশের বেশ কয়েকটি গ্রাম জলমগ্ন হয়ে পড়ে। মানুষজনকে চরম ভোগান্তির মধ্যে পড়তে হয়।  রাস্তা  বরাবর যে নালাটি ছিল  তা এক প্রকার অকেজো হয়ে পড়েছিল অবৈধভাবে দোকানঘর ও বসতবাড়ি নির্মাণের ফলে। এলাকার সভ্য মানুষ জন প্রশাসনিক  অনিহাকে দায়ী করেছিল।

[আরও পড়ুন- কন্যা সন্তান জন্ম দিয়ে একটি গ্রাম সবুজায়ন করার সংকল্প এক বাবার]

তবে প্রশাসনের পক্ষে ব্লক আধিকারিক মদন মোহন মন্ডল বলেন, বেশ কিছুদিন ধরেই এই রাস্তার জন্য যে টেন্ডার নিয়েছিল রাস্তার দুই ধারে অবৈধভাবে দোকান ঘর ও বসতবাড়িতে বসবাসকারীদের অন্যত্র সরিয়ে দেওয়ার কথা বারবার আবেদন করেছিল। সাধারণ মানুষের স্বার্থেই সরকারি জমিতে অবৈধভাবে থাকা দোকান ঘর  থেকে বাড়ির কিছুটা অংশ সরিয়ে দেওয়া হলো।

তবে এই  উচ্ছেদের ঘটনাকে সামনে রেখে ওই স্থানের ব্যবসায়ীদের মধ্যে ক্ষোভ প্রকাশ করতেও দেখা গেল।  তাদের দাবি ছিল এই করোনা আবহে এমনিতেই তাদের ব্যবসা মন্দা তার উপর দোকানঘর উচ্ছেদ,এখন পথে বসা ছাড়া কোন উপায় নেই। তারা প্রশাসনের কাছে দাবি রেখেছেন তাদের পরিবার পরিজনদের দু’বেলা দু’মুঠো অন্ন জোগাড় করার জন্য  বিকল্প ব্যবস্থা করে দিক প্রশাসন।

 

 

Related Articles

Back to top button
Close