fbpx
একনজরে আজকের যুগশঙ্খগুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

যোগীরাজ্যের মডেলে বাংলা জিততে চান শাহ

নয়াদিল্লি: বুথ যার ভোট তার। ঠিক এই মন্ত্রেই  বাংলায় বুথ স্তরে সংগঠনকে শক্তিশালী করার নির্দেশ দিলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। একুশের যুদ্ধে উত্তরপ্রদেশের মডেকেই অনুসরণ করার ওপর গুরুত্ব দিচ্ছিন তিনি।

সূত্রের খবর, রাজ্যের প্রতিটি বুথে নিজেদের সংগঠন মজবুত করা, নির্বাচনের দিন ভোট করানো বিজেপির ভোট যাতেই ইভিএম মেশিনের পদ্ম চিহ্নেই পড়ে, তা সুনিশ্চিত করার পাশাপাশি বুথের ভিতরে ও বাইরে রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে সমানে সমানে টক্কর দেওয়ায় বিষয়ে জোর দিয়েছেন অমিত শাহ। সময়সীমাও বেঁধে দিয়েছেন তিনি।

এমাসের মধ্যেই বাংলায় বুথ স্তরে সংগঠন মজবুত করার কাজ সেরে ফেলতে হবে বলে শাহি নির্দেশ এসেছে।

বিজেপি সূত্রের খবর, একসময় যেভাবে উত্তরপ্রদেশে বিজেপি সরকারকে ক্ষমতায় আনতে বুথ স্তরের মতো ‘মাইক্রো লেভেল ম্যানেজমেন্টের’ ঘুঁটি সাজিয়েছিলেন তিনি, এবারও ঠিক সেই কৌশলই বঙ্গ বিজয়ের রাস্তায় হাঁটতে চলেছেন শাহ।

রাজ্যে বর্তমান প্রায় ৭৮,৯০৩ বুথ রয়েছে। দেশে করোনা পরিস্থিতির কারণে সদ্য বিহার বিধানসভা নির্বাচনের মতোই বাংলার নির্বাচনের সময়েও বুথের সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ার প্রবল সম্ভাবনা রয়েছে। সেই বিষয়টিকে মাথায় রেখে, ‘আপনা বুথ সবসে মজবুত’। এই লক্ষ্য সামনে রেখেই এগোতে চলেছেন শাহ। আর বুথ স্তরের সংগঠন মজবুত করার লক্ষ্যেই সুনীল দেওধর-সহ সংগঠনের একগুচ্ছ কেন্দ্রীয় নেতাকে ইতিমধ্যেই দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

বিজেপি সূত্রের খবর, কলকাতা, মেদিনীপুর, রাঢ়বং, নবদ্বীপ ও উত্তরবঙ্গ জোনের সংগঠন দেখবেন যথাক্রমে উত্তরপ্রদেশ, হিমাচল প্রদেশ, হরিয়ানা, গুজরাট ও বিহারের সাধারণ সম্পাদক ( সংগঠন) সুনীল বনসল, পবন রানা, রবিন্দর রাজু, ভিখুভাই দাসানিয়া ও রত্নাকর অবশ্য বিহারের সহ সাধারণ সম্পাদক (সংগঠন) পদে রয়েছেন। ঢাকঢোল পিটিয়ে প্রচার নয়, প্রতিটি বুথে বিজেপি লোক তৈরি করার ওপরেই অমিত শাহ জোর দিচ্ছেন।

Related Articles

Back to top button
Close