fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

দীর্ঘদিন ধরে অবহেলায় পড়ে শহিদ রাজেশ ওরাংয়ের বেলগড়িয়ার আদিবাসী স্কুল

প্রদীপ্ত দত্ত, সিউড়ি: দীর্ঘদিন ধরে অবহেলায় পড়ে আছে বেলগড়িয়ার আদিবাসী প্রাথমিক স্কুল । হতদরিদ্র এই আদিবাসী গ্ৰাম বেশকিছুদিন হল শিরোনামে নামে এসেছে বেলিগড়িয়া গ্ৰামের বাসিন্দা রাজেশ ওরাং লাদাখের গালওয়ানে চিনা সেনাবাহিনীর সঙ্গে শহিদ হওয়ার পর।

 

 

 

কোনওরকমে দিন গুজরান করা এই আদিবাসী সম্প্রদায়ের ছেলেমেয়েদের পড়ানো সামর্থ্য নেই অনেকেরই। গ্ৰামের মধ্যেই আছে ভগ্নপ্রায় এক প্রাথমিক স্কুল । লকডাউনের বহু আগে থেকেই এই স্কুলে পড়াশোনা কার্যত বন্ধ ছিল পরিকাঠামো ও প্রাথমিক শিক্ষা দপ্তরের অবহেলায় । ছাত্রছাত্রী থাকলেও পড়াশোনা বন্ধ হয়ে গেছে তাদের বর্তমান পরিস্থিতিতে। লকডাউনের গ্ৰামের আদিবাসী সম্প্রদায়ের মানুষ প্রবল অর্থনৈতিক সঙ্কটের মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন । যদিও গ্ৰামের মানুষরা চান স্কুলটি চালু হোক।
গত শুক্রবার প্রাথমিক শিক্ষা সংসদের চেয়ারম্যান রাজেশ ওরাংয়ের পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে যান । সেইসময় গ্ৰামের বাসিন্দারা তাদের ছেলেমেয়েদের জন্য বেলগড়িয়া গ্ৰামের প্রাথমিক স্কুলের ভগ্নদশার কথা বলেন । এরপরই প্রলয় নায়কের নির্দেশ স্কুল পরিদর্শক স্কুলটি পরিদর্শন করতে আসেন ।

 

 

 

প্রলয় নায়েক আশ্বাস দেন , “স্কুলটির পরিকাঠামো যাতে ঠিক করা যায় তাঁর নির্দেশ দিয়েছি। শিক্ষকরাও আসবেন গ্ৰামে ছোট ছেলেমেয়েদের পড়াশোনার জন্য ও পড়াশোনা সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় চাহিদাগুলো মেটানোর জন্য ।”  আশ্বাসে খুশি হলেও এতদিন ধরে ভগ্নপ্রায় বেলগড়িয়া প্রাথমিক স্কুল কবে থেকে এবং কিভাবে চালু হবে , তা জানেন না গ্ৰামের আদিবাসী সম্প্রদায়ের মানুষজন।

Related Articles

Back to top button
Close