fbpx
আন্তর্জাতিকগুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

প্রণব মুখোপাধ্যায়ের জন্য রাইসিনা হিলসে ইলিশ ভাপা রেঁধে খাইয়েছিলেন শেখ হাসিনা

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: ভারতের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতির প্রয়াণে গভীরভাবে শোকাহত বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বাঙ্গালী প্রণব মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে এক নিবিড় সম্পর্ক ছিল এই বঙ্গবন্ধু কন্যার। শেখ হাসিনাকে বোনের মতন স্নেহ করতেন প্রণববাবু, অপরদিকে শেখ হাসিনার কাছে ‘বড়দা’ সম্বোধন পেয়েছিলেন তিনি। দাদার মতন সম্মান ও শ্রদ্ধা পেয়েছিলেন বাংলার গর্ব প্রণব মুখোপাধায়। রক্তের সম্পর্ক না থাকলেও এদের মধুর সম্পর্কের সাক্ষী থেকেছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।  কিন্তু এই দাদা-বোনের সম্পর্কের ইতি পড়ল সোমবার। চিরঘুমের দেশে পাড়ি দিয়েছেন বড়দা।  অর্থা‍ৎ ভারতের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়। দাদার মৃত্যুর পর স্মৃতি রোমন্থন করেছেন শেখ হাসিনা।

২০১৩ সালে বাংলাদেশে এসেছিলেন ভারতের ত‍ৎকালীন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়। সেইসময় বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বড়দাকে নিজের হাতে রান্না করে  রুই মাছের কালিয়া, তেল কই, চিতলের পেটি, সরষে দিয়ে ছোট মাছের ঝাল আর গলদা চিংড়ির মালাইকারি খাইয়েছিলেন। জানা গিয়েছে যে, শেখ হাসিনার রান্না পায়েশ খেয়েই দিল্লির  বিমান ধরেছিলেন দাদা প্রণব মুখোপাধ্যায়।

[আরও পড়ুন- ফোটো ফিচার…ব্রহ্মের শব্দ প্রতীক: প্রণব]

২০১৭ সালের এপ্রিল মাসে ভারত সফরে এসেছিলেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী। ভারতের রাষ্ট্রপতিকে রেঁধে খাওয়ানোর জন্য তিনি সঙ্গে এনেছিলেন ত্রিশ কেজি ওজনের একটি ইলিশ মাছ। আর সঙ্গে এনেছিলেন দেশের সেরা ছয় রাঁধুনিকে। রাইসিনার হেঁশেলে ঢুকে নিজের হাতেই দাদার প্রিয় ভাপা ইলিশ রেঁধেছিলেন শেখ হাসিনা। রাইসিনা হিলে রাষ্ট্রপতি ভবনেই উঠেছিলেন প্রণব মুখোপাধ্যাইয়ের আদরের বোন শেখ হাসিনা। প্রিয় বোনকে আপ্যায়ন করতে এক নৈশভোজের আয়োজন করেছিলেন দাদা প্রণব মুখোপাধ্যায়। সেই নৈশভোজে উপস্থিত ছিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

 

Related Articles

Back to top button
Close