fbpx
অন্যান্যপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

দল আলাদা কিন্তু সভাপতি পদে হ্যাট্রিক করে নজির গড়লেন সাংসদ সৌমিত্র খাঁ

শ্যামল কান্তি বিশ্বাস : প্রথমে কংগ্রেস তারপর তৃণমূল কংগ্রেস এবং বর্তমানে বিজেপির যুব মোর্চার সভাপতির পদে আসীন হয়ে রাজনীতিতে নজির গড়লেন বিষ্ণুপুরের সাংসদ সৌমিত্র খাঁ।

 

 

২০০৯ সাল থেকে ২০২০ সালের ১ লা জুন পর্যন্ত ১২ বৎসরের এই স্বল্প সময়কালে কোন বিরতি ছাড়া রাজনৈতিক ধারাবাহিকতা অক্ষুণ্ন রেখে দল পাল্টালেও পদমর্যাদা অটুট রেখে অনন্য নজির সহ ইতিহাস গড়লেন সৌমিত্র বাবু। বাঁকুড়া জেলার প্রত্যন্ত গ্রাম গঙ্গাজল ঘাঁটি দুর্লভপুরের সৌমিত্র খাঁ(৪১), যিনি বর্তমানে বিষ্ণুপুর লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি সাংসদ। এই নির্দিষ্ট সময় কালের মধ্যে একাধিক রাজনৈতিক দল পরিবর্তন করলেই সভাপতির পদটি কিন্তু ধরে রেখেছেন সব ক্ষেত্রেই। এবং পদমর্যাদার দিক থেকে যেমন ধারাবাহিকতা বজিয়ে রাখতে সক্ষম হয়েছেন পাশাপাশি এই নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে প্রথমে কংগ্রেসের টিকিটে “কোতুলপুর” বিধায়ক সভা কেন্দ্র থেকে নির্বাচনে জয় লাভ করে বিধায়ক এবং পরবর্তীতে ২০১৪ সালে মুকুল রায়ের হাত ধরে দল পরিবর্তন করে তৃণমূলে যোগাদান এবং বিষ্ণুপুর লোকসভা কেন্দ্র থেকে সাংসদ পদে তৃণমূলের টিকিটে প্রতিদ্বন্ধিতা এবং জয়লাভ।

 

 

২০১৯ সালে সেই মুকুল রায়ের হাত ধরেই পুনরায় দল পরিবর্তন করে বিজেপিতে যোগদান। ২০১৯ এ বিজেপির টিকিটে প্রতিদ্বন্দ্বিতা এবং জয়লাভ করে লোকসভায় সাংসদের আসন অলংকৃত করেছেন সৌমিত্র বাবু। ঘটনায়, আঞ্চলিক পর্যায়ে নয়, তিনটি সর্ব ভারতীয় রাজনৈতিক দলের রাজ্য যুব সংগঠনের সর্বোচ্চ পদে আসীন হওয়ার সুবাদে নিজেকে অপরাজেয় প্রমাণ করেছেন,এই যুব নেতা সাংসদ সৌমিত্র বাবু।

 

 

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, সৌমিত্র খাঁ ২০১১ সালে পশ্চিমবঙ্গ প্রদেশ যুব কংগ্রেসের রাজ্য সভাপতি নির্বাচিত হন। ঐ ২০১১ সালেই বাঁকুড়া জেলার কোতুলপুর বিধান সভা কেন্দ্র থেকে কংগ্রেসের টিকিটে বিধায়ক নির্বাচিত হন।২০১৪ সালে তৃনমূলে যোগদান এবং বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুর লোকসভা কেন্দ্র থেকে তৃণমূলের টিকিটে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে জয়লাভ করে সাংসদ নির্বাচিত হন।২০১৫ সালে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অনুপ্রেরণায় তৃণমূল যুব কংগ্রেসের রাজ্য সভাপতি পদে মনোনিত হন এবং ২০১৯ সালে মুকুল রায়ের হাত ধরে পূনরায় দল পরিবর্তন এবং বিজেপির টিকিটে নির্বাচনে অংশগ্রহণ, এবং আইনী জটিলতায় এলাকায় না ঢুকতে পেড়েও প্রিয়তমা স্ত্রী সুজাতা খাঁ এর ঐকান্তিক প্রচেষ্টা এবং এলাকা মধ্যের জনগণের স্বতঃস্ফূর্ত সমর্থনে পূনরায় জয়লাভ।সাম্প্রতিক কালে সাফল্যের এহেন নজীর রাজনীতিতে খুব একটা কম ই দেখা যায়। বিজেপির যুব সাংগঠনিক পরিবর্তনের মধ্যদিয়ে দেবজিৎ সরকারের স্থলাভিসিক্ত হয়েছেন সৌমিত্র খাঁ।রাজ্য যুব সভাপতির পদ পাওয়ার গর্বিত সৌমিত্র বাবু।

Related Articles

Back to top button
Close