fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

শুভেন্দু অধিকারীর সভাতে মালদা জেলা পরিষদের সভাধিপতি! প্রকাশ্যে তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দল

মিল্টন পাল, মালদা: শুভেন্দু অধিকারীর সভাতে মালদা জেলা পরিষদের সভাধিপতি গৌড় চন্দ্র মন্ডল সহ বেশ কয়েকজন কর্মদক্ষ যাওয়াকে কেন্দ্র করে প্রকাশ্যে তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দল। দলের নেতৃত্বে একাংশের অভিযোগ দল ভাঙানোর চেষ্টা করছে কিছু মানুষ। এদের বিরুদ্ধে যাতে দলীয় ভাবে ব্যবস্থা নেওয়া হয়।ইতিমধ্যে জেলা পরিষদ সদস্যদের নিয়ে বৈঠকে বসেছে সদস্যরা।

অন্যদিকে সভাধিপতিকে নিয়েও আলোচনা করা হয়।আর এই নিয়ে জেলা সভানেত্রীকে জরুরী তলব করলো রাজ্য নেতৃত্ব। আর এরই মাঝে জেলা পরিষদের সভাধিপতির সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করে সোশ্যাল সাইটে নিজের ভিডিও বার্তা পোষ্ট করেন। বলেন,তিনি কোথাও যান নি তিনি মালদাতেই আছেন।নিজের বাড়িতেই আছেন। কিছু মানুষ ভুল বুঝাচ্ছে।

মালদা জেলা পরিষদের সভাধিপতি গৌড় চন্দ্র মন্ডল তিনি শুভেন্দু অধিকারীর অনুগামী বলে পরিচিত।যেদিন নন্দী গ্রামে শুভেন্দু অধিকারী সমাবেশ করছিলেন সেদিন সভাধিপতি সহ জেলা পরিষদের প্রায় ১০জন সদস্য অনুপস্থিত ছিল মালদা জেলায়। দলের নেতৃত্বে একাংশের দাবি দলকে না জানিয়ে তারা সেই সভায় গিয়েছিলেন। সেদিন থেকেই তাদের সাথে কোন যোগাযোগ করা যাচ্ছে না।এমনকি মালদা জেলায় মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে কর্মী সভায় তাদের দেখা পাওয়া যায় নি। আর এই নিয়ে জরুরী ভিত্তিতে নুর মেনশনে আলোচনা সভা ডাকে সভায় যাওয়া ১০জন সদস্য বাদে বাকি জেলা পরিষদ সদস্যরা। অন্যদিকে সভাধীপতি গৌড় চন্দ্র মন্ডলকে নিয়েও বৈঠক হয়। জেলা পরিষদের সহকারী সভাধীপতি চন্দনা সরকার বলেন,সম্প্রতি শুভেন্দু অধিকারীর সভায় যাওয়া নিয়ে একটি ঘটনা ঘটেছে। আমরা মমতা বন্দোপাধ্যায়ের সৈনিক। এদিন আমরা এই বিষয়ে আলোচনা সভা ডেকেছি। সেখানে সবাই উপস্থিত হয়েছে। কে কি কোথায় করছে বা কি করছে সেটা আমাদের জানার বিষয় নয়।

আরও পড়ুন: স্ত্রীকে খুন করে আত্মঘাতী স্বামী, এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য

মালদা জেলা পরিষদের সভাধিপতি গৌড় চন্দ্র মন্ডল বলেন তাদের নামে ভুল বার্তা রটানো হচ্ছে। আমি মালদাতেই আছি। এদিকে তৃণমূলের এই কোন্দলকে কেন্দ্র করে ময়দানে নেমেছে বিজেপি। বিজেপির দাবি বিহার ভোটের পরে অনেক তৃণমূল সদস্যই তাদের দল থেকে হাওয়া হয়ে যাচ্ছে। যত নির্বাচন এগিয়ে আসবে হওয়ার প্রবণতা আরও বাড়বে। জেলা তৃণমূলের কো-অর্ডিনেটর দুলাল সরকার বলেন,ঘটনাটি শুনেছি। বিষয়টি রাজ্য নেতৃত্ব কে জানানো হয়েছে। রাজ্য নেতৃত্ব নির্দেশ অনুযায়ী এদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Related Articles

Back to top button
Close