fbpx
অন্যান্যলাইফস্টাইলহেডলাইন

পুজোতে পান সিল্কি চুল তাও আবার একমাসেই

দোয়েল দত্ত: হাতের করগুণে দেখতে হলে পুজোর আর একটা মাসও বাকি নেই৷ করোনার জেরে স্যাঁলোতে শেষ মুহূৰ্তে যাওয়া হবে কি না জানা নেই, তার সঙ্গে চারপাশের পরিবেশ দূষণ আর ঠিকঠাক পুষ্টির অভাবে চুলটাও কীরকম ম্যাড়ম্যাড়ে হয়ে গেছে? কীভাবে পাবেন সিল্কি হেয়ার, তা-ও এই অল্প সময়ে তারই কয়েকটি চমকপ্ৰদ টিপস রইল-

১. চুল সবসময়ে ঠান্ডাজলে ধোবেন৷ গরমজলে ধুলে চুল শুষ্ক তো হয়ই, ডগাও নষ্ট হয়ে যায়৷ শুষ্ক মানেই নির্জীব চুল৷ আর সেটা যদি ভেজা অবস্থায় বাঁধা হয়, তাহলে মাথায় নানান সংক্রমণ হয়৷ তাই স্নানের সময়ে মাথায় ঠান্ডা জল ঢালুন৷

২. স্নানের পরে চুল মোছার সময়ে হালকা করে তোয়ালে দিয়ে জলটা ঝরিয়ে নিন, জোরে জোরে ঘষবেন না, এতে চুলের গোড়া আলগা হয়ে চুল বেশি করে পড়ে যায়৷

                   আরও পড়ুন: পুজোর আগে এক মাসে ডায়েট করে কমান ১০ কেজি, কীভাবে?

৩. স্নানের পরে আপনার চুলের ধরন অনুযায়ী সেরাম লাগান, এতে চুলে আলাদা ঔজ্জ্বল্য আসে৷ অনেকেই স্ট্ৰেইটনার বা ব্লো ড্ৰাই ব্যবহার করেন, এতে কয়েকদিন চুল ভালো থাকবে, কিন্তু এফেক্ট কেটে গেলেই আস্তে আস্তে চুল রুক্ষ্ম হতে শুরু করবে৷

৪. সপ্তাহে একদিন দই, ডিম ও লেবু দিয়ে প্যাক বানিয়ে মাথায় লাগান৷ ঘণ্টাখানেক রেখে ঠান্ডা জলে ধুয়ে ফেলুন৷ লাগানোর পরে চুলে কন্ডিশনিং করতে ভুলবেন না৷ এতে চুল আলাদা পুষ্টি পায়৷

৫. এখন আর সারারাত চুলে তেল দিয়ে রাখতে হবে না৷ স্নান করতে যাওয়ার আধঘণ্টা আগে নারকেল তেল বা ক্যাস্টর অয়েল গরম করে ঘষে ঘষে স্ক্যাপ্লে লাগিয়ে হট টাওয়েল দিয়ে পেঁচিয়ে রাখুন৷ এরপরে শ্যাম্পু করে নিলে চুলে আসবে আলাদা শাইন৷

                                         আরও পড়ুন: পুজোর বাজারের খোঁজ খবর…..

৬. অনেকেই পার্লারে গিয়ে কেরাটিন থেরাপি করান৷ আপনি বাড়িতে সেটা অ্যালোভেরা মাস্ক বানিয়ে করতে পারেন৷ এককাপ কুসুম গরম জলে অ্যালোভেরা জেল গুলে নিয়ে মাথায় লাগিয়ে রাখুন মিনিট কুড়ি স্নান করতে যাওয়ার খানিকক্ষণ আগে৷ তারপরে ধুয়ে ফেলুন৷

৭. আমাদের শরীরের মতো চুলেরও যত্ন দরকার, আমরা যেমন স্মুদি খাই, চুলকেও তেমনি স্মুদি দেওয়া উচিত৷ মানে বিশেষ প্যাকের কথা বলা হচ্ছে৷ একটা পাকাকলা সমপরিমাণ দইয়ের সঙ্গে চটকে পেস্ট তৈরি করে মাথায় লাগিয়ে রাখুন৷ চুল পাবে তার পর্যাপ্ত ময়েশ্চারাইজার৷ ৪৫ মিনিট পরে ধুয়ে ফেলে শ্যাম্পু করলে চুলের চকচকে ভাবটা আসবে৷

৮. অ্যাপেল সিডার ভিনিগার চুলের জন্য ভালো৷ এটি চুলের পিএইচ-এর ভারসাম্য বজায় রাখে৷ এককাপ জলে আধকাপ অ্যাপেল সিডার ভিনিগার মিশিয়ে নিন৷ চুল স্নানের সময়ে ধোওয়া হয়ে গেলে এই জল দিয়ে আরেকবার ধুয়ে নিন আর নিজেই দেখুন ফারাকটা৷

৯. মনে রাখবেন অতিরিক্ত চুল ধোওয়া আর শ্যাম্পু করা দুটোই চুলের জন্য খারাপ৷

১০. চুলকে গর্জাস লুক দিতে অ্যাভোকাডোর প্যাক ব্যবহার করতে পারেন৷ দুটো অ্যাভোক্যাডো ম্যাশ করে তাতে দুচামচ অলিভ অয়েল ও দই টেবিলচামচ মধু দিয়ে চুলে মাখিয়ে রাখুন, যতক্ষণ না পেস্টটা ড্যালা পেকে যায়৷ এরপরে শ্যাম্পু করে ধুয়ে নিলে ঔজ্জ্বল্য আসবে৷

Related Articles

Back to top button
Close