fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

বাড়ির টিনের চাল থেকে উদ্ধার নরকঙ্কাল! চাঞ্চল্য শিলিগুড়িতে

কৃষ্ণা দাস, শিলিগুড়ি: বাড়ির ছাদ থেকে নরকঙ্কাল উদ্ধারকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়াল শিলিগুড়ির পুরনিগমের ১৮ নম্বর ওয়ার্ডের সুভাষপল্লি এলাকায়। বুধবার সকালে স্থানীয় ভিক্টর চক্রবর্তীর বাড়ির টিনের চাল থেকে উদ্ধার হয় মানুষের দুটি মাথার খুলি সহ বেশ কিছু হাড়গোড়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় শিলিগুড়ি থানার বিশাল পুলিশবাহিনী। গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, ওই বাড়িতে বসবাসকারি ভিক্টরের মা আর বাবার মৃত্যু হয়। এরপর থেকেই মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে সে। খানিকটা বিকারগ্রস্থও হয়ে পড়ে সে। অনেকের মতে ওই যুবক মানসিক ভারম্যহীন। ঘটনার পর থেকে ওই যুবক পলাতক। ওয়ার্ড কো-অর্ডিনেটর নিখিল সাহানি জানান, মঙ্গলবার তার কাছে খবর আসে, ওই বাড়িটি থেকে দুর্গন্ধ বের হচ্ছে। বুধবার সকালে তিনি সেখানে সাফাই কর্মীদের পাঠান। তারা এসে দেখে বাড়ির চারিদিন নোংরা আবর্জনায় ভর্তি। সেই সঙ্গে টিনের চালের ওপরে কিছু পড়ে থাকতে দেখেন সাফাইকর্মীরা। তিনি সঙ্গে সঙ্গে খবর দেন পুলিশে। পাশাপাশি তিনি নিজে সেখানে পৌঁছে দেখেন টিনের চালের ওপরে দুটো মাথার খুলি ও কিছু হাড়গোড় পড়ে রয়েছে। এদিকে সাফাই কর্মীদের বাড়ির মধ্যে আসতে দেখে অভিযুক্ত ভিক্টর তাদের সামনে দিয়েই চলে যায়। ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌঁছে মাথার খুলি ও হাড়গুলো উদ্ধার করে। কি করে হাড়গুলো এখানে এল? কে বা কারা কোথা থেকে এগুলো নিয়ে এল কিংবা এর মধ্যে অন্য কোনো রহস্য রয়েছে কিনা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

নিখিলবাবু আরও জানান, এই যুবকটি একটি বেসরকারী দফতরে কর্মরত। তার বাড়িতে বাইরে থেকে বেশকিছু যুবকের আড্ডা চলত, যুবক নেশাও করত বলে স্থানীয়রা তার কাছে অভিযোগ করেন। এদিকে প্রশ্ন উঠছে, একজন মানসিক ভারসাম্যহীন যুবক কি করে বাড়িতে নেশা ও আড্ডার আসর বসায়? এই বিষয়ে ডিসিপও ইস্ট নিমা নরবু ভুটিয়া জানান, গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। কঙ্কালের অংশগুলিকে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হবে।

Related Articles

Back to top button
Close