fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

বিধবা ভাতার টাকার জন্য মাকে মারধরের অভিযোগ ছেলের বিরুদ্ধে

শ‍্যাম বিশ্বাস, উওর ২৪ পরগন: বিধবা ভাতার টাকার জন্য মাকে মারধরের অভিযোগ ছেলের বিরুদ্ধে। বসিরহাট মহাকুমার মাটিয়া থানার নেহালপুর আমতলার ঘটনা। ৭৫ উদ্ধ বৃদ্ধা মা অনুমতি রায়, গত ৩০ বছর আগে স্বামী বিপিনবিহারী রায় মারা গেছেন। সংসারে ৫ মেয়ে ও দুই ছেলে। মেয়েদের বিয়ে হয়ে গেছে। ছোট ছেলে বিধান রায় ও বৌমা অনামিকা রায়, গত পাঁচ বছর ধরে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন চালাত বৃদ্ধা মায়ের ওপর। শারীরিক ক্ষমতা হারিয়েছে, গায়ের চামড়া গুটিয়ে গেছে, চোখে ঠিকমতো দেখতে পায় না, সংসারের কাজ করতে পারেনা, অক্ষমতায় গ্রাস করেছে। ছোট ছেলে ও বৌমার বড় ছেলে ও বৌমা পাশের বাড়িতে থাকে। জীবনের শেষ সম্বলটুকু হলো রাজ্য সরকারের দেওয়া বিধবা ভাতা মাসে ১০০০, টাকা। তার ওপর নজর ছেলে-বৌমার, সেটাই হাতাতে গত তিন মাস ধরে ছোট ছেলে ও বৌমা বিভিন্ন সময় অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ, মানসিক ও শারীরিক নির্যাতন চালাত বলে অভিযোগ।

আরও পড়ুন: বারুইপুরে গৃহ সম্পর্ক অভিযানে দিলীপ ঘোষ

এদিন সকাল বেলায় ব্যাংকের একাউন্টে বিধবা ভাতার টাকা ঢুকেছে সেই টাকা ছোট ছেলে ও বৌমা ব্যাংকের বই হাতাতে চেষ্টা করে, বৃদ্ধা প্রতিবাদ করলে তাকে চড়, কিল, ঘুষি মারতে শুরু করে ছোট ছেলে বিধান। অনামিকা তার শাশুড়ির হাত-পা ধরে রাখে বেধড়ক মারধর করে ছেলে। এই ঘটনা জানাজানি হতেই পাশের ঘর থেকে নাতি সঞ্জয় রায় ছুটে এসে কোনরকম ভাবে কাকা কাকিমার মারধরের হাত থেকে রক্ষা করে ধান্যকুড়িয়া গ্রামীণ হাসপাতালে ভর্তি করে। বৃদ্ধা মায়ের অবস্থা আশঙ্কাজনক। এই ঘটনার জেরে গ্রামের মানুষ ক্ষোভে ফুঁসছে।

বসিরহাট উত্তর বিধানসভার চেয়ারম্যান এটিএম আব্দুল্লাহ রনি জানান, এইভাবে এক অসহায় বৃদ্ধ বিধবা ভাতার টাকা হাতানো খুব দুর্ভাগ্যজনক। এটা একবিংশ শতাব্দীতে অমানবিক ঘটনা। আমরা যাতে ছোট ছেলে বিধান রায় ও বৌমা অনামিকা রায় এর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি। ছেলে ও বৌমার বিরুদ্ধে মাটিয়া থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে বৃদ্ধা মা। ছেলে বিধান ও বৌমা অনামিকা রায় কে পুলিশ আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করছে।

Related Articles

Back to top button
Close