fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

ছেলের ব্রেইন ডিফেক্ট ছেলের, চিকিৎসায় সাহায্যের আবেদন দিন মজুর বাবা- মায়ের

বিদ্যুৎ কান্তি বর্মন, ঘোকসাডাঙ্গা: টেনে টুনে দিন মজুরি করে কোনো রকমে সংসার চলে। তার উপর করোনা পরিস্থিতি লকডাউন আনাগোনায় সব দিন মিলছে না কাজ। অনেক সময় আধপেটে দিন কাটছে। এ মত পরিস্থিতিতে পরিবারের বড় ছেলে ব্রেইন ডিফেক্ট। চিকিৎসা করার নেই অর্থ সামর্থ্য। কোন সরকারি বা বেসরকারি সংস্থা যদি এই রোগীটিকে সুস্থ্য করতে সাহায্য করে সেই দীর্ঘ আসার পথ চেয়ে সাহায্যের আবেদন গরিব বাবা মার।

জানা গিয়েছে মাথাভাঙ্গা ২ ব্লকের প্রেমের ডাঙ্গা গ্রাম পঞ্চায়েতের সালমারা গ্রামের শন্তেশ্বর বর্মনের ছেলে থানেশ্বর বর্মন বয়স ৩৬ বছর ব্রেইন ডিফেক্ট হওয়ায় তাকে সামাল দিতে শিকল দিয়ে বেঁধে রাখা হয়েছে। এক সময় থানেশ্বর বর্মন সুস্থ্য ছিল। সংসাসের আয় উন্নতি চিন্তা করেই কাজের খোঁজে জয়পুর গেছিল মোটা টাকার কাজ করাতে। বিয়েও করে বর্তমানে দুই মেয়ে আর ৬ বছর বয়সের একটি ছেলে আছে।

প্রথমে শিলিগুড়ির একটি হাসপাতলে চিকিৎসা করে সুস্থ্য হলেও পরে আরও অসুস্থ্য হয়ে যায় । এখন অবস্থা এতটাই খারাপ যে থানেশ্বরক বর্মনকে শিকল দিয়ে বেঁধে রাখতে হচ্ছে। নিজের বউ বাচ্চা থেকে শুরু করে পথচলতি সকল মানুষকেই প্রায় মারধোর করে। ফলে স্থানীয়দের ও পরিবার পক্ষ থেকে থানেশ্বর বর্মন কে বর্তমানের সামাল দিতে হাতে পায়ে শিকল দিয়ে বেঁধে রাখতে হচ্ছে। এরকম পরিস্থিতিতে কোন সহৃদয় ব্যক্তি বা সংস্থা যদি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয় তবেই ছেলেটিকে বাঁচানো সম্ভব হবে বলে থানেশ্বর বর্মনের বাবা-মা কাকুতি-মিনতি করে সাহায্যের আবদার জানিয়েছেন।

Related Articles

Back to top button
Close