fbpx
কলকাতাপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

রাজ্যের সবুজ সংকেত পেলেই পুজোর মরশুমে চলতে পারে হাওড়া-দিঘা ট্রেন

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা:
করোনার দাপটে স্বাভাবিক জীবনের রং ফিকে হয়ে গিয়েছে। থমকে আছে মানুষের আবেগ, আত্মীয় স্বজনের বাড়ি যাওয়া নেই, কাছে পিঠে একটু ঘুরে আসার সুযোগ নেই।

অথচ বাঙালির শ্রেষ্ঠ উৎসব দুর্গোৎসব একেবারে দোরগোড়ায়। ভ্রমণ পিপাসু বাঙালি চাইছে ঘরের কাছে দিঘা, মন্দারমণি ঘুরে আসতে। অথচ রাজ্যে বেশ কিছু স্পেশাল ট্রেন চললেও দিঘা রুটে স্পেশাল ট্রেন চালু হয়নি। দক্ষিণ পূর্ব রেলের স্পষ্ট বক্তব্য, রাজ্য সরকারের সবুজ সঙ্কেত পেলে চলতে পারে হাওড়া- দিঘা স্পেশাল ট্রেন।

ঘটনা হলো করোনার সংক্রমণ এখনও সমান গতিতে চলছে। বিশেষজ্ঞরা আশঙ্কা করছেন পুজোর ভিড়ে সংক্রমণ বাড়তে পারে। মুখ্যমন্ত্রীও সতর্ক করছেন একাধিক বিধিনিষেধ জারি করেছেন। বাঙালি তাই ভাবছে ঝাউবনের নির্জনে, সমুদ্রের বেলাভূমিতে একান্তে কটা দিন কাটাতে। কোলাহল থেকে দূরে, সংক্রমণের ভয় নেই।
হাতের কাছে দিঘা ,মন্দারমনি। দুটি জায়গাতেই পুজোয় বুকিং শেষ।

হোটেল বুকিং হলেও চিন্তা পরিবহন নিয়ে। ট্রেন চলছে না। ট্রেন চালানোর দাবি তুলে রেলের কাছে আবেদন জানিয়েছে হোটেল মালিকদের সংগঠন। কিন্তু দাবি তুললেই ট্রেন চলবে এমনটা নয়। ছাড়পত্র দিতে হবে রাজ্যকে। খড়গপুরের ডিআরএম মনোরঞ্জন প্রধান শনিবার স্পষ্ট ভাষায় জানিয়েছেন, ‘রেলের কাছে দাবি জানিয়ে কিছু হবে না। পুরোটাই নির্ভর করছে রাজ্যের সিদ্ধান্তের উপর। পুজোর আগে, না পরে কবে কখন ট্রেন চলবে জানাবে রাজ্যই। রেল প্রস্তুত। রাজ্য কাল বললে, কালই চলবে ট্রেন।’

প্রসঙ্গত স্বাভাবিক সময়ে হাওড়া থেকে দিঘা যাওয়ার দুটি ট্রেন ছিল- তাম্রলিপ্ত এক্সপ্রেস ও কাণ্ডারী এক্সপ্রেস। পর্যটকদের কাছে খুবই জনপ্রিয় ছিল ট্রেন দুটি। উৎসবের মরশুমে বেশ কিছু স্পেশাল ট্রেন চালু হয়েছে। এখন দেখার দিঘার স্পেশাল ট্রেনের জন্য নবান্নের সবুজ সঙ্কেত কবে মেলে।

Related Articles

Back to top button
Close