fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণবিনোদনহেডলাইন

করোনার সঙ্গে লড়াই, ‘ফেলুদা’র চিকিৎসায় প্লাজমা থেরাপির প্রয়োগ

অভীক বন্দ্যোপাধ্যায়,কলকাতা: এখনও ভেন্টিলেশনে প্রতিকূল পরিস্থিতির মধ্যেই লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন বর্ষীয়ান অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। হাসপাতাল সূত্রে খবর, দৈনিক ১০ লিটার করে অক্সিজেন দিতে হচ্ছে চিকিৎসাধীন অভিনেতাকে। তার শরীরে এখনও অক্সিজেনের চাহিদা অনেকটাই বেশি। একই সঙ্গে করোনার সঙ্গে লড়াইয়ের জন্য সৌমিত্রবাবুর শরীরে কনভালোসেন্ট প্লাজমা প্রয়োগ করছেন বেলভিউয়ের চিকিৎসকরা। তবে তার রক্তচাপ এখনও উঠানামা করছে।

হাসপাতাল সূত্রে খবর, সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের অবস্থা এখন স্থিতিশীল হলেও কিছু শারীরিক অস্থিরতা রয়েছে। চিকিৎসা বিজ্ঞানের পরিভাষায় একে বলা হয় ‘করোনা ইন্সলোপাথি’। যাতে রোগীর আচমকা আচমকা খিঁচুনি হতে পারে। সৌমিত্রবাবুর ক্ষেত্রেও সেই উপসর্গ দেখা যাচ্ছে। ১২ জন চিকিৎসকের একটি টিম তাঁর দেখাশোনা করছেন।

তবে এদিন তার চেস্ট সিটিস্ক্যান করে তেমন কিছু পাওয়া যায়নি৷ এখন তার মস্তিষ্কের এমআরআই জরুরি মনে করছেন চিকিৎসকরা। কিন্তু ‘এজিটেটেড’ থাকার কারণে তা সম্ভব হচ্ছে না৷ তাঁর শরীরে পটাশিয়ামের মাত্রা এখনও কম রয়েছে। সোডিয়াম-পটাশিয়ামের সেই ভারসাম্য স্বাভাবিক করার চেষ্টা হচ্ছে।

শুক্রবার তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাঁকে কেবিন থেকে আইটিইউতে স্থানান্তরিত করা হয়৷ ৮৫ বছরের বর্ষীয়ান অভিনেতার ‘রক্তচাপ ওঠানামা করছিল,এমনকি কমে গিয়েছিল অক্সিজেনের মাত্রাও৷ তাই তাকে আইটিইউ-তে স্থানান্তরিত করে অক্সিজেন সাপোর্টে রাখা হয়৷ রবিবার তার সামান্য উন্নতি হয়েছে৷ তবে প্রবীণ অভিনেতার ক্যান্সার-প্রেশার-সুগার- সিওপিডি-র মতো একাধিক কো-মর্বিডিটি রয়েছে৷ তাকে এখন কড়া পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে৷ চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, ভয়ের কোনও কারণ নেই

Related Articles

Back to top button
Close