fbpx
কলকাতাহেডলাইন

ডিএ নিয়ে রিভিউ মামলা খারিজ স্যাটে

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: ফের আদালতে মুখ পুড়ল রাজ্য সরকারের। ডিএ নিয়ে রাজ্যের আনা পুনর্বিবেচনার আর্জি খারিজ করে দিল স্যাট। বুধবার এই নির্দেশের পাশাপাশি স্যাটের দুই বিচারকের ডিভিশন বেঞ্চ ডিএ নিয়ে আগের নির্দেশই বহাল রাখাল। স্যাট ডিএ নিয়ে মামলায় রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের পক্ষেই কার্যত রায় দিল। ফলে ফের একদফা ধাক্কা খেল রাজ্য সরকার। বুধবার রায় দিতে গিয়ে স্যাট ফের জানিয়েছে, ডিএ রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের প্রাপ্য অধিকার। তাই তা দিতেই হবে। রাজ্য সরকার তা আটকে রাখতে পারে না। কেন্দ্রীয় হারেই এই ডিএ প্রদান করতে হবে বলে এদিন জানিয়েছে স্যাট।

প্রসঙ্গত, গত বছর ২৬ জুলাই সর্বভারতীয় মূল্যসূচক অনুযায়ী, কেন্দ্র সরকার যে নিয়ম মেনে কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীদের ডিএ বা মহার্ঘ ভাতা দেয় সেই নিয়ম মেনেই রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের ডিএ দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল। তিন মাসের মধ্যে সর্বভারতীয় স্তরে মূল্য সূচকের ভিত্তিতে রাজ্যের মুখ্য সচিবকে সব প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে নির্দেশ দিয়েছিল স্যাট। কিন্তু তিন মাস পেরোলেও রাজ্য সরকার কর্মচারীদের স্বার্থে এখনও পর্যন্ত কোনও রকম উদ্যোগ নেয়নি।

তাই রাজ্য সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করে আদালত অবমাননার অভিযোগে ফের স্যাটের দ্বারস্থ হয় রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের সংগঠনগুলো। অন্যদিকে, স্যাটের এই রায়ের প্রেক্ষিতে রিভিউ পিটিশনের আবেদনে মামলা দাখিল করে রাজ্য সরকার। বুধবার সেই মামলারই রায়দান হয়েছে স্যাটের ডিভিশন বেঞ্চে।

আরও পড়ুন: বাম আমলে রাজ্যের পঞ্চায়েতগুলি ১০০ শতাংশ চুরি করত, আমরা ৯০ শতাংশ দুর্নীতি কমিয়েছি: মুখ্যমন্ত্রী

ষষ্ঠ বেতন কমিশন চালু হলেও বকেয়া ডিএ দেওয়া হবে না বলে রাজ্যের পক্ষে ঘোষণা করা হয়েছিল। করোনা পরিস্থিতির জন্য আগামী দেড় বছর কেন্দ্র-ও কর্মীদের মহার্ঘ ভাতা বাড়াবে না বলে জানিয়েছে। তবে গত ১ জানুয়ারিতেই কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের ৪ শতাংশ ডিএ ঘোষণা হয়। কেন্দ্রের ওই ডিএ বৃদ্ধির ফলে রাজ্য সরকারি কর্মীদের বকেয়া মহার্ঘ ভাতা ২১ শতাংশে পৌঁছয় বলে দাবি বিভিন্ন কর্মচারী সংগঠনের। রাজ্যের আবেদন ছিল কোভিডের কথা মাথায় রেখে এই বিষয়টি বিচার করা হোক। তবে এ দিন সেই আবেদন বাতিল করা হয়েছে।

 

 

 

Related Articles

Back to top button
Close