fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

২১০ জন আর্তের পাশে শ্রী অরবিন্দ বিদ্যামঠ

ভাস্করব্রত পতি, তমলুক : কোরোনা আবহে বহু মানুষের লবেজান অবস্থা। চারিদিকে একটা ম্রিয়মান পরিস্থিতি। লক ডাউনের গেরোতে আটকে সর্বত্র ছন্দপতন ঘটেছে। এমতবস্থায় দেড়িয়াচক শ্রী অরবিন্দ বিদ‍্যামঠে অভিনবভাবে এগিয়ে এলো সাধারণ মানুষের জন্য। বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সেইসব মানুষের পাশে দাঁড়ালো, যাঁরা অসহায়, দরিদ্র এবং এই কোরোনা উদ্ভুত পরিস্থিতিতে বেসামাল।

বিদ‍্যালয়ের শিক্ষক শিক্ষিকা ও অশিক্ষক কর্মচারীদের একত্রিত উদ‍্যোগে বিদ‍্যালয় এলাকার পার্শ্ববর্তী সাতটি গ্রামের ২১০ জন গরিব পরিবারের হাতে খাদ্যসামগ্রী সহ সাবান, স‍্যানিটাইজার ও মাস্ক তুলে দেওয়া হয়। আর এভাবেই অসহায় মানুষদের হাতে সাহায্য তুলে দিয়ে তাঁদের শ্রদ্ধা জানালো বিদ্যালয়। এ এক অনন্য মানবিক উপস্থাপন। বিদ‍্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ড. নির্মলেন্দু ঘড়া বলেন, ‘অতিমারির আবহে সমাজের অসহায় মানুষজনের পাশে থেকে আমরা তাঁদের শ্রদ্ধা জানিয়েছি। এই কঠিন লড়াইয়ে তাঁদের জীবন সংগ্রামও আমাদের কাছে শিক্ষনীয়’।

                আরও পড়ুন: রক্তাক্ত বার্মিংহাম, ছুড়িকাহত বেশ কয়েকজন

এছাড়াও দুরারোগ‍্য ব‍্যাধিতে আক্রান্ত এলাকার এক দুঃস্থ ব‍্যক্তির পরিবারের হাতে পঞ্চাশ হাজার টাকা তুলে দেওয়া হয়। আগামীদিনে ঐ পরিবারের চিকিৎসার জন‍্য আরও সাহায্যের আশ্বাস দেওয়া হয়। সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি মেনেই এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিদ‍্যালয়ের সকল শিক্ষক শিক্ষিকা।

সেই মার্চের শেষ থেকে বিদ‍্যালয় বন্ধ। সবকিছুই থমকে আছে কোরোনার দাপটে। কেবল প্রতিমাসে মিড ডে মিল বিতরণ ছাড়া বিদ‍্যালয়ে আর কিছুই হয়নি। ক্লাস বন্ধ। ছাত্র ছাত্রীদের স্কুলে আসা বারণ। তাই ছাত্র ছাত্রীদের পাশাপাশি মন ভালো নেই শিক্ষকদেরও। এলাকার অতি পরিচিত মানুষজনের সাথেও দেখা নেই। এমন অচেনা পরিস্থিতিতে আগে কখনো পড়েনি কেউ। এমতবস্থায় একটু ভিন্নতর ভাবেই জনসংযোগ করলো বিদ্যালয়ের সকলে।

Related Articles

Back to top button
Close