fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

দাদার অনুগামীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া শুরু! সরাতে নির্দেশ অমূল্য মাইতিকে

তারক হরি, পশ্চিম মেদিনীপুর:  বিধানসভা নির্বানের আগেই বঙ্গ রাজনীতিতে বেড়ে চলেছে উত্তাপ। নির্বাচনের আগেই একের পর এক নেতামন্ত্রীর গলায় বিদ্রোহের সুর। যার ফলে বাড়ছে শাসকদলের অস্বস্তি। এই পরিস্থিতিতে ব্যবস্থা নিলেন শুভেন্দু ঘনিষ্ঠ ‘দাদার অনুগামী’দের বিরুদ্ধে। পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা পরিষদের কর্মাধ্যক্ষ পদ থেকে এবার সরিয়ে দিতে বলা হল অমূল্য মাইতিকে। খোদ মূখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী নাকি তাঁকে জেলা পরিষদের খাদ্য কর্মাধ্যক্ষ পদ থেকে অপসারিত করার কথা বলে গেছেন বলে জানা গেছে।

গত শুক্রবার তাঁর সরকারি নিরাপত্তা প্রত্যাহার করার পর এবার মুখ্যমন্ত্রীর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই নির্দেশ জানান দিচ্ছে শুভেন্দু অনুগামীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া শুরু করে দিলেন দলের সুপ্রিমো। যদিও বিষয়টি নিয়ে কোনও প্রতিক্রিয়া দেননি দলের কেউ বা অমূল্য মাইতি নিজেও। তবে দলের একটি সূত্র নিশ্চিত করেছে এই খবর। সোমবার মেদিনীপুরে সভা করেছেন মূখ্যমন্ত্রী। বিধানসভা নির্বাচনের প্রাক্কালে কার্যত এটাই ছিল মূখ্যমন্ত্রীর প্রথম সভা। সেই সভা করার পর রাতে থেকে যান তিনি। সার্কিট হাউসে রাত্রি বাসের পর মঙ্গলবার রানীগঞ্জের উদ্দেশ্যে উড়ে যাওয়ার আগে জেলা পরিষদের সভাধিপতি উত্তরা সিং হাজরা ও সহ সভাধিপতি তথা দলের জেলা সভাপতি অজিত মাইতিকে এমনই নির্দেশ দিয়ে গেছেন বলে সূত্রের খবর।

উল্লেখ্য অমূল্য মাইতি ১৯৯৮ সাল থেকেই তৃণমূল করে আসছেন। জেলা পরিষদের প্রথম বোর্ডে বিদ্যুৎ কর্মাধ্যক্ষ ছিলেন কিন্তু দ্বিতীয় বোর্ড থেকে প্রায় তাঁকে সরিয়েই দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়। যদিও  শুভেন্দু অধিকারীর হস্তক্ষেপে অপেক্ষাকৃত কম গুরুত্বপূর্ণ পদ দেওয়া হয় তাঁকে। তিনি প্রকাশ্যে বারবার শুভেন্দু অনুরক্ততা প্রকাশ করেছেন। ২০১৬ সালে মানস ভূঁইয়া তৃণমূলে যোগ দেওয়ার পর ক্রমশ মাইতি দলে কোণঠাসা হয়ে পড়েছিলেন। তাহলে কি এবার পদ থেকে সরিয়ে তৃণমূল দল থেকেই একেবারে ঝেড়ে ফেলতে চাইছে? বলে বৈশিষ্ট্য রাজনৈতিক মহলে গুঞ্জন উঠছে ।

যদিও ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন জেলা তৃণমূল সভাপতি অজিত মাইতি। তবে এই বিষয়টি নিয়ে কোনো মন্তব্য করতে চাননি তিনি। উল্লেখ্য মুখ্যমন্ত্রীর এই সভায় আরও কিছু নেতা হাজির ছিলেন না। তাঁদের সম্পর্কে খোঁজ খবর নেন মুখ্যমন্ত্রী। আপাততঃ অমূল্য মাইতিকে সরাতে বলা হয়েছে এরপর একে একে অনেকের বিরুদ্ধেই এই ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে তৃণমূল সূত্রে জানা গেছে।

 

Related Articles

Back to top button
Close