fbpx
গুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

করোনা রুখতে ব্যর্থ রাজ্য, স্বাস্থ্যমন্ত্রক ছাড়া উচিত মুখ্যমন্ত্রীর: রাজু বিস্ত

সঞ্জিত সেনগুপ্ত, শিলিগুড়ি : বেহাল স্বাস্থ্য ব্যবস্থার জন্যই পশ্চিমবঙ্গে করোনা ভয়াবহ আকার নিচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে অবিলম্বে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে স্বাস্থ্য দফতর ছেড়ে দেওয়ার দাবি জানালেন দার্জিলিংয়ের সাংসদ বিজেপি-র রাজু বিস্ত।

গত ২৮ মে দিল্লি থেকে শিলিগুড়িতে এসেছের বিজেপি-র এই সাংসদ। করোনা বিধি মেনে তিনি হোম কোয়রারান্টাইনেই রয়েছেন। কিন্তু মঙ্গলবার তাঁকে স্বাস্থ্য দফতর থেকে ফোন করে জানানো হয়, তাঁকে এবং তাঁর সঙ্গে দিল্লি থেকে যারা এসেছেন তাদের সবাইকে উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে গিয়ে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করার জন্য। সেই মতো এদিন বিকালে তিনি উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে গিয়ে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করান। তিনি সুস্থ রয়েছেন বলেই চিকিৎসকরা জানিয়েছেন।
হাসপাতাল থেকে বেরিযে যাওয়ার সময় স্ংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘ করোনায় এখন পর্যন্তর পশ্চিমবঙ্গে মৃত্যুর হার অনেক বেশি। প্রতিবেশী রাজ্য বিহারের যেখানে দশমিক ছয় শতাংশ মানুষের মৃত্যু হয়েছে করোনায়, সেখানে পশ্চিমবঙ্গে মৃত্যুর হার ৬ শতাংশ। জাতীয় মৃত্যুর হরের থেকেও যা অনেক বেশি। রাজ্যে গ্রাম থেকে শহর কোথাও এতদিন স্বস্থ্য ব্যবস্থার কোনও উন্নতি হয়নি। এ জন্যই রাজ্যে করোনা সংক্রমণ ভয়াবহ আকার নিচ্ছে।’
টাস্ক ফোর্স গঠন সহ করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় রাজ্য এখন যা যা করছে তা আরও আগে‌ করা দরকার ছিল বলে দার্জিলিংয়ের সাংসদ। তিনি বলেন, ‘ মুখ্যমন্ত্রীর অনেক দিক দেখতে হয়। তাই তিনি স্বাস্থ্য দফতরে নজর দিতে পারছেন না। একজন পূর্ণ সময়ের মন্ত্রীর হাতে আলাদা করে স্বাস্থ্য দফতর থাকা দরকার।

তাই এই পরিস্থিতিতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উচিত স্বাস্থ্য দপ্তরের দায়িত্ব ছেড়ে দেওয়া।’

অন্যদিকে তৃণমূলের অভিযোগ, করোনা পরিস্থিতি নিয়ে ভুল তথ্য দিয়ে মানুষকে দার্জিলিংয়ের সাংসদ ও তাঁর দল বিজেপি বিভ্রান্ত করছেন। করোনা সঙ্কটে সাধারণ মানুষের পাশে না থেকে রাজ্যের ক্ষমতা দখলের জন্য বিজেপি নোংরা রাজনীতি শুরু করেছে বলে এদিন অভিযোগ করেন দার্জিলিং জেলা তৃণমূলের সভাপতি রঞ্জন সরকার।

Related Articles

Back to top button
Close