fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

দুষ্কৃতী তাণ্ডব, ভাঙচুর নাকতলা উদয়ন সংঘের ক্লাবঘর, জখম ২, ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ পার্থের

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: সামান্য বাইক আরোহী রেস নিয়ে কথা কাটাকাটির জেরে মধ্যরাতে একদল যুবক এসে আচমকাই ভাঙচুর এবং তাণ্ডব চালাল নাকতলা উদয়ন সংঘ ক্লাবে। আচমকা ক্লাব ভাঙচুরের ঘটনায় হতচকিত হয়ে বাধা দিতে গেলে আহত হন দুই ক্লাব সদস্য, আর তারা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। উল্লেখ্য, এই ক্লাবটি শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের ক্লাব বলে পরিচিত, তিনি এই ক্লাবের চেয়ারম্যান। ঘটনা জানতে পেরে পুলিশ প্রশাসনকে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন শিক্ষা মন্ত্রী।
রবিবার সকালে এই নিয়ে শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, ‘‘শনিবার রাতেই উদয়ন সঙ্ঘ ক্লাবের সদস্য, কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলেছি। আমি এতদিন ওই এলাকায় থেকেও ‘বাইক বাহিনী’-র তাণ্ডব আগে কখনও দেখিনি। প্রশাসনকে বলেছি, দুষ্কৃতীদের চিহ্নিত করে অবিলম্বে যেন গ্রেফতার করা হয়। তবে এর সঙ্গে কোনও রাজনীতির যোগ নেই।’’
জানা গিয়েছে, শনিবার সন্ধ্যায় নাকতলা উদয়ন সংঘ ক্লাবের সামনে বাইক নিয়ে রেস করছিল কয়েকজন যুবক। আচমকাই একজন নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে এক ক্লাব সদস্যের বাইকে ধাক্কা মারে। তিনি প্রতিবাদ করলে দুপক্ষের বাকবিতণ্ডা হয়। অভিযোগ, সেই সময় ওই যুবকরা দেখে নেওয়ার হুমকি দিয়ে চলে যায়।
এরপর রাত সাড়ে ১১ টা নাগাদ আচমকাই প্রবল ভাঙচুর এবং চেঁচামেচির আওয়াজ শোনেন স্থানীয় বাসিন্দারা। দেখা যায়, ২০-২৫ জন দুষ্কৃতী হাতে বাঁশ ইট নিয়ে বাইকে চড়ে নাকতলা উদয়ন সংঘ ক্লাবের সামনে এসেছে। ক্লাবের একতলার ২টি ঘরে তারা ব্যাপক ভাঙচুর করছে। ওই ঘরে ক্লাবের অনেক গুরুত্বপূর্ণ জিনিসপত্র রাখা ছিল। তাই এই আচমকা আক্রমণ থামাতে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন ক্লাবের সদস্যরা। কিন্তু মারমুখী ওই যুবকরা তাদের কেও রেহাই দেয়নি। ঘটনায় গুরুতর আহত হয় দুজন। এরপর লোকজন জমা হওয়া শুরু করলে ওই যুবকেরা তাদের বাইক নিয়ে চম্পট দেয়। এরপর ঘটনাস্থলে আসে নেতাজি নগর থানার পুলিশ।
 স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, ওই যুবকেরা প্রত্যেকেই হিন্দিভাষী  এবং নিজেদের মধ্যে  হিন্দিতেই কথা বলছিল। যুবকেরা কেউ তাদের এলাকার নয় বলেই তারা জানিয়েছেন পুলিশকে। দূর থেকে কয়েকজন ঘটনার সময়  যুবকদের ছবি তুলতে পেরেছিলেন। সিসিটিভি ফুটেজ সহ ওই ছবিগুলি খতিয়ে দেখছে পুলিশ। এছাড়া এলাকার  পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে মোতায়েন রয়েছে বিশাল পুলিশবাহিনী। দ্রুত দুষ্কৃতীরা ধরা পড়বে বলে দাবি পুলিশের।

Related Articles

Back to top button
Close