fbpx
কলকাতাহেডলাইন

লকডাউনে গার্হস্থ্য হিংসার শিকার হয়ে পথে ছাত্রী! পাশে দাঁড়াল বিশ্ববিদ্যালয়

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: নিজেরই পরিবারের সদস্যদের হাতেই চূড়ান্ত ভাবে নিগৃহীত হয়ে লকডাউনের মধ্যেই বাড়ি ছেড়ে বেরিয়ে আসতে বাধ্য হল এক ছাত্রী। কিন্তু তার এই কঠিন সময়ে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিল যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়। যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ মেয়েটিকে বিশ্ববিদ্যালয়েরই গেস্ট হাউসে থাকার ব্যবস্থা করে দেয়। যাদবপুর থানার পুলিশের পাশাপাশি পুরো বিষয়টি মহিলা কমিশনেও জানানো হয়েছে বলে সূত্রের খবর।

প্রসঙ্গত, স্বাভাবিক সময়ে অনেক পারিবারিক বা গার্হস্থ্য হিংসার কথা সামনে আসে না। কিন্তু লকডাউনে এক ছাদের তলায় থাকার সময়ে ব্যক্তিগত পছন্দ অপছন্দ নিয়ে চূড়ান্ত নিগ্রহের শিকার হতে হয় যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থবিদ্যা বিভাগের স্নাতকোত্তর দ্বিতীয় বর্ষের ওই ছাত্রীকে। তাকে প্রচন্ড ভাবে শারীরিক ভাবে নিগ্রহও করা হয়। জানা গিয়েছে, ওই ছাত্রী লকডাউনের মধ্যেই দিন দুই–তিনেক আগে তাঁর বাড়ি থেকে বেরিয়ে আসতে বাধ্য হয়। মেয়েটির বন্ধুরা সেই সময় তার জন্য বাড়ি ভাড়া খোঁজার চেষ্টা করেছিল। কিন্তু এই লকডাউনের আবহে কেউই বাড়ি ভাড়া দিতে রাজি হয়নি। অগত্যা মেয়েটির বন্ধুরাই বিষয়টি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে জানায়। তারপরই যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ মেয়েটিকে বিশ্ববিদ্যালয়েরই গেস্ট হাউসে থাকার ব্যবস্থা করে দেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ–‌উপাচার্য চিরঞ্জীব ভট্টাচার্য জানিয়েছেন, ‘ঘটনাটি খুবই দুর্ভাগ্যজনক। পারিবারিক বিষয়ের মধ্যে আমরা ঢুকতে চাইছি না। মানবিকতার কারণেই ওই ছাত্রীর পাশে দাঁড়িয়েছি আমরা। আপাতত যতদিন লকডাউন চলবে ছাত্রীটি ততদিনই গেস্ট হাউসে থাকবে। তার পরও বিষয়টির সমাধান না হলে মেয়েটিকে হস্টেলে রাখার ব্যবস্থা করা হবে। লকডাউনের কারণে গেস্ট হাউসও বন্ধ ছিল। ছাত্রীটির জন্যই খোলা হয়েছে। দেখাশোনার জন্য একজন কর্মীকে রাখা হয়েছে।’

 

 

 

Related Articles

Back to top button
Close