fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

রাষ্ট্র রক্ষায় সুবোধের আত্মবলিদান বিফলে যাবে না, দেশবাসী মনে রাখবে: সাংসদ জগন্নাথ সরকার

শ্যামল কান্তি বিশ্বাস, কৃষ্ণনগর: বীর শহিদ সুবোধ ঘোষের অন্তষ্টিক্রিয়ার যোগ দিলেন রানাঘাট লোকসভা কেন্দ্রের সাংসদ জগন্নাথ সরকার। রঘুনাথপুর নিমতলা বিদ্যানিকেতের মাঠে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় আয়োজিত শহিদ সুবোধ ঘোষের শেষ অন্তেষ্টিক্রিয়া কর্মসূচিতে যোগদানের আগে সুবোধের বাড়িতে পৌঁছান সাংসদ জগন্নাথ সরকার এবং কথা বলেন সুবোধের বাবা গৌরাঙ্গ ঘোষ সহ তার মা এবং স্ত্রী অনন্যার সঙ্গে। সর্বতভাবে পাশে থাকার আশ্বাস দেন জগন্নাথবাবু।

ঘটনা গত শুক্রবার ভারতীয় সেনা বাহিনীতে কর্মরত নদিয়ার প্রত্যন্ত গ্ৰাম তেহট্টের রঘুনাথপুরের বাসিন্দা সুবোধ ঘোষ কাশ্মীরের বারামুল্লা সীমান্তে প্রহরারত অবস্থায় আচমকা পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর গুলিতে সুবোধ সহ আরও পাঁচ জন সেনাকর্মীর মৃত্যু হয়। সুবোধের মৃত্যু সংবাদ বাড়িতে পৌঁছাতেই শোকে মূহ্যমান পরিবার, পাশে থাকার বার্তা নিয়ে স্থানীয় তেহট্ট থানার ওসি তেহট্টের বিডিও এবং তেহট্ট বিধানসভা এলাকার বিধায়ক গৌরীশংকর দত্ত শনিবারই পৌঁছান।

আরও পড়ুন: প্রশাসনিক স্তরে রদবদল হাওড়া জেলায় 

রবিবার সকালে কিষাণ মোর্চার রাজ্য সভাপতি মহাদেব সরকার দেখা করেন সুবোধের শোকস্তব্ধ পরিবারের সঙ্গে এবং একই দিনে রাতে রানাঘাট লোকসভা কেন্দ্রের সাংসদ জগন্নাথ সরকার হাজির হন সুবোধের বাড়িতে এবং কথা বলেন, সুবোধের স্ত্রী অনন্যা ঘোষ সহ সুবোধের বাবা গৌরাঙ্গ ঘোষের সঙ্গে এবং সর্বতোভাবে পাশে থাকার বার্তা দেন। যে কোনও প্রয়োজনে সাংসদ জগন্নাথবাবু সহ কেন্দ্রীয় সরকার সব সময় সাহায্যের হাত বাড়াতে প্রস্তুত বলে গৌরাঙ্গ বাবুর পরিবার কে নিশ্চিত করেন। জগন্নাথ বাবু সুবোধের স্ত্রীর সঙ্গে একান্তে কথা সহ তিন মাসের শিশুকন্যার খোঁজখবর নেন। এর পর সুবোধের কফিনবন্দি দেহ আসার পর প্রশাসনিক আধিকারিকের সঙ্গে তিনিও শেষ শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করেন।

Related Articles

Back to top button
Close