fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

বিজেপির সভা নিয়ে জামালপুর অশান্ত হওয়ার জন্য দিলীপ ঘোষকেই কাঠগড়ায় তুললেন মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়

প্রদীপ চট্টোপাধ্যায়, বর্ধমান: বিজেপির জনসভা নিয়ে শনিবার অশান্ত হয়  ওঠে পূর্ব বর্ধমানের জামালপুরের জৌগ্রাম এলাকা। তৃণমূল ও বিজেপি কর্মীদের মারপিট ঘিরে ওই এলাকা রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় । এই ঘটনার জন্য রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষকেই কাঠগড়ায় তুললেন রাজ্যের বর্ষীয়ান মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়।

শনিবার সন্ধ্যায় মন্ত্রী পূর্ব বর্ধমানের বেলনা গ্রামে একটি মঞ্চের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেন । সেই সভামঞ্চ থেকেই দিলীপ ঘোষের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দেন মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায় ।

প্রসঙ্গত শনিবার বিকালে দিলীপ ঘোষ যখন জামালপুরের সাহাপুরে কৃষক সমাবেশে যোগ দিতে যাচ্ছিলেন তখন জৌগ্রামে তার গাড়ির সামনে কালো পতাকা দেখানো নিয়ে অশান্তি চরম আকার নেয় । যুযুধান দুই রাজনৈতিক দলের মধ্যে ধুন্ধুমার বেঁধে যায় । মারপিটে চারজন বিজেপি কর্মী আহত হন। পাল্টা বিজেপি কর্মীরাও হামলা চালায় । এলাকা রণক্ষেত্র হয়ে উঠলে পুলিশ লাঠি চালিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে ।

এই ঘটনা নিয়ে তীব্র ভাষায় তৃণমূলকে নিশানা করেন দিলীপ ঘোষ। তার মন্তব্যের পাল্টা জবাবে সুব্রত মুখোপাধ্যায় বলেন ; উনি রোজই ভুত দেখেন। সবজায়গাতেই তৃণমূলের ভূত দেখা ওনার স্বভাব। আগে উনি দেখুন উনার নিজের দলের কোনো বিক্ষুব্ধরা এই ঘটনা ঘটিয়েছে কী-না।একই সঙ্গে সুব্রত বাবু বলেন , বিজেপি এখন নানা দিবাস্বপ্ন দেখছে। আরো দু- একমাস দিবাস্বপ্ন দেখবে। ভোটের ফল বেরোলে সব স্বপ্ন মিলিয়ে যাবে।

এছাড়াও দিলীপ ঘোষের হুঁশিয়ারি প্রসঙ্গে সুব্রতবাবু বলেন ,ওটা ওনাদের স্বভাব। জৌগ্রামের তৃণমূল পার্টি অফিসে হামলার প্রসঙ্গে সুব্রতবাবু বলেন, ঘটনা নিয়ে দলের তরফে নিশ্চয়ই থানায় অভিযোগ জানানো হবে।আইন আইনের পথে চলবে ।

Related Articles

Back to top button
Close